• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভূঞাপুরে দুপক্ষের সংঘর্ষ, গুলি-ককটেল বিস্ফোরণ

  কবির হোসেন, ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল)

০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ০৯:৪৯
ছবি : দৈনিক অধিকার

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বালু ঘাটের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্রে নিকরাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল মতিন সরকার এবং ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মাসুদুল হক মাসুদ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ১৫ থেকে ২০ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে দিকে উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের পলশিয়া গ্রামের বাগানবাড়ী ঘাটে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ভূঞাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৭ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা যায়, উপজেলার নিকরাইলে প্রায় ২০টি অবৈধ বালুর ঘাট রয়েছে। এসব ঘাটের বালু ট্রাকযোগে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যায়। শুষ্ক মৌসুমে যমুনা নদী শুকিয়ে চর জেগে উঠলে শুরু হয় নদীর পাড় কেটে বালু বিক্রি। ঘাটের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্রে করে বুধবার দুপুরে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক মাসুদুল হক মাসুদ এবং সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মতিন সরকারের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষের সময় ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলির ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে দুই পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করতে ৭ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এতে দুই পক্ষের অন্তত ১৫ থেকে ২০ জন আহত হন।

আহত শহিদুল ইসলাম বলেন, যমুনার নদীর বাগানবাড়ি এলাকায় অন্যের জমির উপর দিয়ে ভিটবালুর ঘাটের রাস্তা তৈরি ও দখল করছিল ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানের লোকজন। এ সময় তাদের বাধা দিতে গেলে হামলার ঘটনা ঘটে। তাদের ছোঁড়া পাথরের আঘাতে আমার পায়ের হাড় ভেঙে যায়।

নিকরাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন সরকার বলেন, চেয়ারম্যান মাসুদুল হক মাসুদ ও নুহু মেম্বারের লোকজন বালুর ঘাট দখল করে মাটি তোলার যন্ত্র (ভেকু) ও ক্যাশ কাউন্টার ভাঙচুর করে লুটপাট করেন। এ সময় তারা ককটেল ও গুলি ছুড়ে। এতে ঘাটে থাকা ৮ জন আহত হয়েছে।

নিকরাইল ইউপির নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মাসুদুল হক মাসুদ জানান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির লোকজন অন্যদের জমি দখল করে ঘাট তৈরি করছিল। এ সময় তারা বাধা দিতে গেলে তাদের ওপর আক্রমণ চালানো হয়। এতে ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতরা টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল ওহাব জানান, নিকরাইলের বাগানবাড়ী নামক এলাকার বালুর ঘাট দখল নেওয়াকে কেন্দ্র করে সাবেক চেয়ারম্যান ও নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানের লোকজনের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে। এতে উভয়পক্ষ দেশীয় অস্ত্র ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে বলে শুনেছি।

তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৭ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করা হয়। এর আগে তাদের সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ওডি/এমএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড