• শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

লংগদুতে গড়ে উঠেছে ভূমি দস্যু সিন্ডিকেট

  এম.কামাল উদ্দিন, রাঙামাটি

২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:৪১
ছবি : সংগৃহীত

রাঙামাটির লংগদু উপজেলা সদরের বাইট্টা পাড়ায় মো. আবদুল মালেক সিন্ডিকেটের উচ্ছেদের কবলে পড়ে ভিটা-মাটি হারিয়েছেন ও মামলা-হামলার শিকার হয়েছেন এলাকাবাসী। গত বুধবার সকালে বাইট্টা পাড়া তিন টিলা ৩নং লংগদু মৌজার ভুক্তভোগিরা নিজ নিজ বাড়ি ঘরের সামনে ভূমি দস্যু আবদুল মালেকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। ওই এলাকায় মারধর ও মামলা হামলার শিকার ভুক্তভোগিরা জানান, প্রায় একশ পরিবার ভূমি দস্যু মালেক সিন্ডিকেটের মামলা হামলার শিকার হয়ে কেউ পঙ্গু,কেউ ঘর বাড়ি ছাড়া আবার কেউ জেল-হাজতে আছেন।

মালেক তার পরিবার পরিজনসহ ভাড়াটি ভূমিদস্যু মালাদ্বীপের মো. জাকির হোসেন, বাইট্টা পাড়ার মো. হারুন ও মধ্যম বাইট্টা পাড়ার জয়নাল মিলে মানুষের ভিটা মাটি জবর দখল ও হামলা হামলা করে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করেছেন। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ট বাইট্টা পাড়ার একশ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার। যদিও তারা বিএনপি জামায়াত শিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত। কিন্তু তাদের দৌড় অনেক দূরে। তারা অন্যের ভূমি দখল করে রাতারাতি কোটিপতি হয়ে গেছে। টাকার গরমে তারা কাউকে পাত্তা দিচ্ছে না। আর লংগদু চালায় এমন নীতি নির্ধারকদেরকেও টাকার বিনিময়ে ঘিলে ফেলেছেন মালেকগং।

বাড়ি ভিটা খেকু মো. আবদুল মালেকগং কর্তৃক হামলা-মামলা ও হয়রানির শিকার আবদুল করিম বলেন, আমার বাবা একজন (অবসর প্রাপ্ত) আনসার সদস্য। আমি আমার বাবা-মা, ভাই ও বোন সবার নামে দফায় দফায় ভুয়া মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার ছোট ভাইকে জেলে পাঠিয়েছেন। আমি ও আমার পরিবারকে কয়েক দফা মারধর করে মালেক গংরা। পরে উল্টা হাসপাতালে গিয়ে ভর্তি হয়ে মিথ্যা ভুয়া মেডিকেল সাটিফিকেট তুলে আমাদের বিরুদ্ধে রাঙামাটি দায়রা ও জজ আদালতে গিয়ে মামলা দায়ের করেন মালেক। গোটা লংগদু জুড়ে ভূমি জবর দখল ও মিথ্যা মামলা হামলা দিয়ে মানুষকে হয়রানি করাই মালেক সিন্ডিকেটের কাজ। টাকার কাছে হেরে যায় ন্যায় স্থানীয় বিচারকেরা। মালেক গত ২০ বছর ধরে জায়গা জমি ক্রয় বিক্রয়ের কাজ করে আসছে। মালেক নাকি লংগদু উপজেলা ভূমি অফিসে সার্ভেয়ার পরিচয়ে এলাকার অসহায় নিরীহ মানুষদের হয়রানি করে আসছে। তার বিরুদ্ধে উপজেলা পর্যায়ে অনেক অভিযোগ হয়েছে। সে স্থানীয় ভাবে কারও বিচার মানতে নারাজ। প্রায় সময় মামলা হামলা নিয়ে পড়ে থাকে রাঙামাটি শহরে।

বাইট্টা পাড়াসহ বিভিন্ন এলাকা হতে ভুক্তভোগি খাদিজা বেগম, গোলামুর রহমান, ফজলুল হক, মো. দুলাল, হালিমা বেগম,আহাম্মদ আলী, কোহিনুর বেগম ইদ্রিস ও নুর ইসলাম জানান, তারা আজ ভিটে মাটি ছাড়া হয়ে যাচ্ছে একমাত্র মালেক সিন্ডিকেটের জন্য। মালেকের সাথে কেউ লড়ে উঠতে পারছে না। কেউ কথা বললেই তাকে মামলা-হামলা দিয়ে এলাকা ছাড়া করে দেন। মালেক সিন্ডিকেটের ভয়ে কেউ ওই এলাকায় মুখ খুলতেও নারাজ। প্রিন্ট ও ইলেকট্টনিক্স মিয়ার মাধ্যমে আমাদের দাবি আমরা প্রশাসনের সহায়তায় আমাদের ভিটে মাটি ফিরে পেতে চাই।

লংগদু উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বাবুল দাশ প্রকাশ বাবু বলেন, মালেক বা ভুক্তভোগিরা কেউ আমাদের আপন বা পর নয়। সবাই লংগদু উপজেলাবাসী। আমরা কাউকে সেল্টার বা অভয় দিচ্ছি না। তারা উভয় পক্ষের কেউ আমাদের কাছে আসেনি। আর জমিজামা নিয়ে দীর্ঘ দিন মামলা মোকাদ্দমা চলছে। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের করার বা কি আছে।

এব্যাপারে জানতে চেয়ে ভূমিদস্যু মালেকের মোবাইল ফোনে কয়েকবার ফোন করা হলেও মালেকের নাম্বার বন্ধ পাওয়া গেছে। তাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. আরিফুল আমিন বলেন, এরকম একটি সিন্ডিকেট আছে শুনেছি। তবে উপযুক্ত প্রমানাদিসহ যথাযথ অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ওডি/এমএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড