• শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চাটখিলে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদা দাবি, কারাগারে ১

  সারাদেশ ডেস্ক

১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৮:৪৪
গ্রেফতারকৃত আসামি
গ্রেফতারকৃত সাইফুল ইসলাম রিয়াদ (ছবি : সংগৃহীত)

নোয়াখালীর চাটখিলে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদা দাবির মামলায় সাইফুল ইসলাম রিয়াদ (৩৫) নামে একজনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. তৌহিদুল ইসলাম তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। গ্রেফতার রিয়াদ চাটখিল পৌর শহরের সুন্দরপুর মহল্লার বাসিন্দা। তিনি নিজেকে ‘ইউটিউব সাংবাদিক’ বলে পরিচয় দেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত বছরের জুনে চাটখিল পৌরসভার ভীমপুরে ব্রিটিশ নাগরিক ও ব্যবসায়ী শাহ সুফিয়ান বাড়ি তৈরি করছিলেন। বাড়ির ভিডিয়ো ফুটেজ নিয়ে ২ জুন রিয়াদ ও তার এক সহযোগী শাহ সুফিয়ানকে পৌরসভার আজিজ সুপার মার্কেটে দেখা করতে বলেন। শাহ সুফিয়ান তার এক বন্ধুকে নিয়ে সেখানে গেলে রিয়াদ শাহ সুফিয়ানকে ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা না দিলে অন্যের জায়গায় বাড়ি নির্মাণ করছে বলে প্রচার করার হুমকি দেন। সেদিনের পরও বারবার চাঁদা চেয়ে ফোন করা হয় সুফিয়ানকে।

এ ঘটনায় গত বছরের ২৯ জুন নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন শাহ সুফিয়ান। শুনানি শেষে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআই নোয়াখালী কার্যালয়কে তদন্ত করে এক মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন : প্রণোদনা থেকে বঞ্চিত হওয়ার শঙ্কা হাজারো দিনমজুরের

পিবিআই কার্যালয় তদন্ত ও স্বাক্ষী প্রমাণ শেষে রিয়াদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেয়। মঙ্গলবার দুপুরে মামলার শুনানির সময় রিয়াদ আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত জামিন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠান।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড