• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বহিস্কারের ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানালেন তৈমূর

  তুষার আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ

১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৮:৩০
সংবাদ সম্মেলনে তৈমূর (ছবি : অধিকার)

বিএনপি থেকে বহিষ্কারের পর এ নিয়ে মুখ খুলেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হয়ে পরাজয় বরণ করা তৈমূর আলম খন্দকার। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর মাসদাইর এলাকায় নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন তৈমূর।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমি দল পরিবর্তন করবো না। আমি জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী। দল আমাকে বহিস্কার করলেও আমি একজন সমর্থক ও কর্মী হিসেবে রাজনীতি করেই যাবো। বিএনপি যেটা ভালো মনে করেছে, সেটা করেছে। দল আমাকে আন্দোলন-সংগ্রাম থেকে মুক্তি দিয়েছে। আমি খেটে খাওয়া মানুষের জন্য রাজনীতি করব।’

এদিকে, দলের এমন সিদ্ধান্তে কিছুটা হতাশাও প্রকাশ করেছেন তৈমূর। তিনি বলেন, ‘২০১১ সালের প্রথম সিটি নির্বাচনে বিএনপি আমাকে বসিয়ে দিলো আর কুমিল্লার সাক্কুকে নির্বাচন করতে না করলো। তারপরও সে করলো। আর এখন দল নির্বাচনে যাবে না তারপরও আমাকে বহিষ্কার করা হলো। এটাই যদি দেশের রাজনীতি ও সংস্কৃতি হয়ে থাকে তাহলে এটাই মেনে নিতে হবে।’

তবে দলের সিদ্ধান্তের বিষয়ে প্রতিবাদ করবেন না জানিয়ে তৈমূর বলেন, ‘দল আমার ব্যপারে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমি সে ব্যাপারে কোনো প্রতিবাদ করব না। কারণ, আমি দলের প্রতি অনুগত। এখন আমার দায়িত্ব হলো দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জনমত গড়ে তোলা ও ডাকাতির বাক্স ইভিএমের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তোলা। আমি সকল রাজনৈতিক দলকে অনুরোধ করবো এই ইভিএম-এর মাধ্যমে তারা যাতে কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করেন।’

তৈমূর আরও বলেন, ‘আমি বিএনপির সমৃদ্ধি কামনা করি। তারেক জিয়ার বাংলাদেশে আগমন কামনা করি। তার সুস্বাস্থ্য কামনা করি এবং দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা করি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে অনুরোধ করি, আপনি দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দেন, ইতিহাসে আপনার নামটা লেখান।’

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে তৈমূর বলেন, ‘দল না চাইলেও নারায়ণগঞ্জের খেটে খাওয়া মানুষের চাপে আমি নির্বাচন করেছি। সিটি কর্পোরেশনের অব্যবস্থাপনা ও খেটে খাওয়া মানুষের পুনর্বাসন না করে উচ্ছেদসহ নানা কারণে আমি প্রার্থী হয়ে ছিলাম। দলের অনেকে আমাকে নির্বাচনে থাকতে ফোন করেছে, এসএমএস করে উৎসাহ দিয়েছে। তখন কিন্তু দল থেকে কোনো বাধা আসেনি। দল থেকে আমাকে কখনো বলা হয়নি যে, নির্বাচনে যাবে না। তবে দলের পল্টন অফিস থেকে কোনো কোনো নেতা বলেছেন, নেতাকর্মীরা যেন আমার পক্ষে না যায়। তাহলে আমার পক্ষে না গেলে কার পক্ষে যাবে বিএনপির লোকজন? সেক্ষেত্রে ভোটটা তো নৌকার পক্ষেই যায়।’

আরও পড়ুন : প্রণোদনা থেকে বঞ্চিত হওয়ার শঙ্কা হাজারো দিনমজুরের

মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামালের বিষয়ে তৈমূর বলেন, আমার সাথে যা হওয়ার হয়েছে। কিন্তু এটিএম কামালের সাথে যা হয়েছে তা ঠিক হয়নি। কারণ, এমন একটা ত্যাগী কামাল তৈরি হবে না।’

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড