• রোববার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ৯ মাঘ ১৪২৮  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা দিতে লাখ টাকা ফি আদায়!

  শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার

১৪ জানুয়ারি ২০২২, ১১:৪৬
টিকা
শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে (ছবি : অধিকার)

করোনার টিকা দিতে যাতায়াত ও নাশতা খরচের নামে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জনপ্রতি ১০০ টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী কিশলয় আদর্শ শিক্ষা নিকেতন-এর প্রধান শিক্ষক মো. তাজুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এই টাকা নিয়েছেন। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার পাশাপাশি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ক্ষোভের মুখে পড়েছেন ওই প্রধান শিক্ষক।

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নেওয়া টাকা ফেরত চেয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবর নালিশও করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

অভিযোগে জানা গেছে, ১২ বছরের বেশি বয়সী সব শিক্ষার্থীর বিনামূল্যে কোভিড-১৯ করোনার টিকা দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১১ জানুয়ারি চকরিয়া খুটাখালী কিশলয় আর্দশ শিক্ষা নিকেতনের ৮৬৯ জন শিক্ষার্থীকে চকরিয়া উপজেলার মোহনায় নিয়ে টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হয়। আর এই টিকা দেওয়াকে পুঁজি করে প্রতিজন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে মিনিমাম ১০০ করে প্রায় একলক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে প্রধান শিক্ষক মো. তাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে।

যাতায়াতে বাসভাড়া মাত্র ৩০ হাজার টাকা ও অন্যান্য খরচ ১০ হাজার টাকা দেখিয়ে অবশিষ্ট টাকা আত্মসাৎ করেন ওই প্রধান শিক্ষক। এ ঘটনা জানাজানি হলে এলাকায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন অভিভাবক জানান, টিকা দিতে টাকা আদায়ের বিষয়ে তারা প্রধান শিক্ষকের কাছে কৈফিয়ত চাইতে গেলে পরদিন বুধবার (১২ জানুয়ারি) স্কুল বন্ধ ঘোষণা দেয় কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, করোনার টিকা নিতে এসে ভোগান্তির শিকার হয়েছে শিক্ষার্থীরা। স্কুল থেকে প্রায় ২৩ কিলোমিটার দূরে গিয়ে টিকা গ্রহণ করায় বিড়ম্বনায় পড়ে কোমলমতি শিশুরা। নানা অব্যবস্থাপনার কারণে শিক্ষার্থীরা ভোগান্তিতে পড়েন। এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যেও ক্ষোভ দেখা গেছে। একাধিক শিক্ষার্থী জানান, নির্ধারিত সময় থেকে প্রায় দেড় ঘণ্টা আগে তারা টিকা নিতে আসেন। বসার ব্যবস্থা ও পর্যাপ্ত টয়লেট না থাকায় তারা কষ্টে পড়ে যান। এমনকি যাতায়াত ও নাস্তা খরচের নামে ১০০ করে টাকা নেওয়া হলেও স্কুল কর্তৃপক্ষ কোনো সুব্যবস্থাপনা করেনি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মো. তাজুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে শুধুমাত্র পরিবহন খরচের জন্য টাকা নেওয়া হয়েছে। কারণ হিসেবে তিনি দাবি করেন, সরকার বিনামূল্যে টিকা দিয়েছেন কিন্তু পরিবহন খরচ তো দেননি। শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে উত্তোলিত টাকা যাতায়াত ও ব্যবস্থাপনায় খরচ করা হয়েছে। আরও ঘাটতি আছে বলেও তিনি দাবি করেন।

আরও পড়ুন : ঐতিহ্যের ধারক বাঁশখালীর বখশি হামিদ জামে মসজিদ

জানতে চাইলে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেপি দেওয়ান ত্রিপুরা বলেন, শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা উত্তোলনের বিষয়টি আমি জানি না, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড