• রোববার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ৯ মাঘ ১৪২৮  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ঝুঁকিপূর্ণ সাঁকোই পারাপারে একমাত্র ভরসা

  মেহেদী হাসান, লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম)

১৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:৫৮
চট্টগ্রাম
সাঁকো (ছবি : অধিকার)

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার পদুয়ার ধলিবিলা-আধারমানিক সংযোগ সড়কে হাঙ্গরখালের ওপর একটি ব্রিজের দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষা শেষ হচ্ছে না। ব্রিজ না থাকায় এলাকাবাসী ও ওই এলাকার ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের দুর্ভোগের শেষ নেই। প্রতিদিন তাদের ঝুঁকিপূর্ণ নড়বড়ো সাঁকো দিয়ে যাতায়াত করতে হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, হাঙ্গরখালের উত্তর পাড়ে বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। খালের দুই পাশের এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ২ হাজার ছাত্র-ছাত্রী এই ঝুঁকিপূর্ণ সাঁকো দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করে। এছাড়াও খালের উত্তর পাড়ের ৮ নম্বর ওয়ার্ড ও দক্ষিণ পাড়ের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রায় ২০ হাজার মানুষের যাতায়াতের পথ এই নড়বড়ে সাঁকো। আধারমানিক পি.ডি.সি উচ্চ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয়দের অর্থায়নে এ সাঁকো প্রতিবছর নির্মাণ করা হয়। এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের দাবি ওই স্থানে একটি ব্রিজ নির্মাণ করলে তাদের দুর্ভোগ দূর হবে।

শিক্ষার্থীরা জানান, বর্ষাকালে খালে পানি বেড়ে যায়। খালের ওপর নির্মিত সাঁকোটি তখন পানিতে ডুবে যায়। ফলে তাদের চার কিলোমিটার দূরে পদুয়া মাঝের দোকান ব্রিজ হয়ে স্কুলে যেতে হয়। এখানে একটি ব্রিজ হলে তাদের স্কুলে আসা-যাওয়া করতে সুবিধা হয়।

আধারমানিক বিদ্যাকানন একাডেমির শিক্ষক মোহাম্মদ জাহেদ জানান, সাঁকোটি দিয়ে প্রতিদিন স্কুল, মাদরাসার শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী চলাচল করে। তাদের দীর্ঘদিনের দাবি আধার মানিক ধলিবিলা সংযোগ সড়কে হাঙ্গর খালের ওপর একটি ব্রিজ নির্মাণের। এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হলে যাতায়াতে কষ্ট দূর হবে তাদের।

কৃষক আহমদ উল্লাহ জানান, ব্রিজ না থাকায় হাঙ্গর খালের দুই পাশে উৎপাদিত নানা কৃষি পণ্য আনা-নেওয়া কষ্টকর হয়ে পড়েছে। তাছাড়াও বর্ষাকালে সাঁতরে খাল পার হতে গিয়ে প্রায় প্রতি বছর কেউ না কেউ ভেসে গিয়ে মারা যায়।

পদুয়া ইউপি চেয়ারম্যান হারুনর রশিদ জানান, ওই স্থানে হাঙ্গর খালের ওপর একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হলে এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ দূর হবে। এব্যাপারে তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় সাংসদ ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী (এলজিইডি) মুহাম্মদ ইফরাদ বিন মুনির জানান, এলাকাবাসী লিখিত আবেদন করলে ব্রিজের প্রয়োজনীয়তা যাচাই করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হবে।

আরও পড়ুন : ৮০ বছরেও বয়স্কভাতা পান না হতদরিদ্র লোকমান-নবিরন দম্পতি

লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহসান হাবিব জিতু বলেন, আঁধারমানিক-ধলিবিলা সংযোগ সড়কে হাঙ্গর খালের ওপর ব্রিজ নির্মাণ খুবই জরুরি। এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হবে।

ওডি/এফই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড