• শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে চন্দনাইশে ৭ ইউনিয়নে নির্বাচন সম্পন্ন

  মো. কামরুল ইসলাম মোস্তফা, চন্দনাইশ (চট্টগ্রাম)

০৬ জানুয়ারি ২০২২, ১১:৪৬
ছবি : সংগৃহীত

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। কয়েকটি কেন্দ্রে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, গুলিবর্ষণ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে সাধারণ ওয়ার্ডের ১ জন সদস্য প্রার্থী, ভোটার ও পুলিশ কনস্টেবলসহ ১০ জন আহত হয়।

অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর পাশাপাশি দায়িত্ব পালন করেছেন তিনজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও ৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এছাড়া বিজিবি, র‌্যাব ও স্ট্রাইকিং ফোর্সের সদস্যদেরও টহল দিতে দেখা গেছে।

সরেজমিন পরিদর্শনে জানা যায়, হাশিমপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মধ্যম হাশিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল সোয়া ১১টার দিকে পুলিশের গুলিতে মো. রমজান আলী (৫৬) নামের এক ভোটার আহত হয়।

এ ব্যাপারে ওই কেন্দ্রে দায়িত্বরত এসআই শাহাদাত হোসেন জানান, নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকেরা কেন্দ্র দখল করে ব্যালট পেপারে সিল মারছে এমন গুজবের প্রেক্ষিতে দুর্বৃত্তরা ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করতে চাইলে আত্মরক্ষার পাশাপাশি নির্বাচনি সরঞ্জাম রক্ষায় ২-৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

অপর দিকে দুপুর সোয়া বারোটার দিকে বৈলতলী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের উত্তর জাফরাবাদ দায়েমিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থক ও আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ারুল মোস্তফা চৌধুরী দুলালের চাচা মৃত লালু মিয়ার ছেলে ইলিয়াস উদ্দীন চৌধুরী (৫৫) ও তামভীর (২৪) নামে পুলিশের এক কনস্টেবল আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনার জের ধরে কিছুক্ষণ ওই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ বন্ধ থাকার পর পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার পর পুনরায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

একই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের পশ্চিম জাফরাবাদ দিঘীরপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সাথে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে রনি তালুকদার (৩১) ও টিপু দাস (২৬) নামে দুই জন ভোটার আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এ সময় ওই কেন্দ্রে প্রায় আধাঘণ্টা ভোটগ্রহণ বন্ধ থাকে।

এদিকে বরমা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের বরমা ইসলামীয়া সিনিয়র মাদ্রাসা কেন্দ্রে দুপুর দেড়টার দিকে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকেরা কেন্দ্র দখল করার চেষ্টা করলে ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর এজেন্ট মাসুম (১৯) আহত হয়। এ ঘটনায় ওই কেন্দ্রে কিছুক্ষণ ভোটগ্রহণ বন্ধ থাকলেও একজন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে বিজিবি ও পুলিশের স্ট্রাইকিং ফোর্স গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে পুনরায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

এছাড়া কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মুরাদাবাদ আজিজিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদের দুই প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষে হাজী রেজাউল করিম তালুকদার (৫৫) নামে বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীকের সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য প্রার্থী আহত হয়।

ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনকালে দেখা যায় ভোটকেন্দ্রগুলোতে পুরুষ ও নারী ভোটারদের দীর্ঘ লাইন। পুরুষ ভোটারদের তুলনায় নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল। কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের কাঞ্চনাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে আহমদ নবী (৭০) নামে এক প্রতিবন্ধী ভোটার হুইলচেয়ারে করে কেন্দ্রে আসতে দেখা গেছে। তাঁর পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে এসেছেন বলে জানান। বরমা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের বরমা ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা কেন্দ্রে ডলি দেব (৭৫), বরমা ইউনিয়নের বাতাজুরী এ.রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কলি বড়ুয়া (৮০) ও বরকল ইউনিয়নের উত্তর বরকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এনু মিয়া (৯০) নামের ভোটারেরা পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পেরে সন্তোষ প্রকাশ করে জানান দীর্ঘদিন পর উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট দিতে পেরে খুব আনন্দ লাগছে।

ওডি/এমএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড