• মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮  |   ১৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

তিন দিনের রিমান্ডে মেয়র আব্বাস

  মো. রাফিকুর রহমান লালু, রাজশাহী

০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:৫১
আদালত চত্বরে মেয়র আব্বাস আলী
আদালত চত্বরে মেয়র আব্বাস আলী। (ছবি: সংগৃহীত)

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করা রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীর ৩ দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছে আদালত।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুর ১ টার দিকে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এর বিচারক শংকর কুমার রিমান্ড শুনানি শেষে তার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে সকাল পৌনে ১ টার দিকে আব্বাসকে আদালত চত্বরে নিয়ে আসা হয়।

এরপর তাকে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে ১০ রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ। আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন মেট্রোপলিটন আদালত ২ এর পিপি এ্যাড. মোসাব্বির ইসলাম।

এদিকে, আসামিপক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে মেয়র আব্বাসের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এ বিষয়ে মেট্রোপলিটন আদালতের পিপি এ্যাড. মুসাব্বিরু ইসলাম জানান, উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত মেয়র আব্বাসের তিন দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন। এ ছাড়াও এ ঘটনার সাথে আর অন্য কেউ জড়িত আছেন কিনা সেই বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

অপরদিকে, আব্বাসকে আদালতে তোলার আগেই জোরদার করা হয় আদালত এলাকার নিরাপত্তা। এ সময় আদালত চত্বরে প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত পুলিশ। যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে তৎপর দেখা যায় পুলিশ সদস্যদের।

উল্লেখ্য, ১লা ডিসেম্বর রাজধানীর একটি হোটেল থেকে র‍্যাবের সদস্যরা পৌর মেয়র আব্বাসকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার করেন। পরে গত ২ ডিসেম্বর র‍্যাবের পক্ষ থেকে রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশের কাছে পৌর মেয়র আব্বাসকে হস্তান্তর করা হয়।

পরে সেদিন সকালে আব্বাস আলীকে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ আদালতে সোপর্দ করে। ওই দিন রিমান্ড আবেদনের ওপর শুনানি না হওয়ায় আদালতের নির্দেশে আব্বাসকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

আরও পড়ুন : ‘কেন্দ্র আমরা দখলে নেবো, আমরা সরকারের প্রতিনিধি’

জানা যায়, রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও কাউন্সিলর আব্দুল মোমিনের দায়ের করা মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। মূলত রাজশাহীর সিটি গেটে ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে মেয়র আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে তিন থানায় তিনটি এজাহার জমা হলেও একটি মামলা হিসেবে গণ্য হয়।

অন্যদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক পদ থেকে আব্বাস আলীকে অব্যাহতি দেয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ। মেয়র পদে ও আব্বাস আলীর প্রতি অনাস্থা জানান পৌরসভার সব কাউন্সিলর।

ওডি/জেআই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড