• বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ৬ মাঘ ১৪২৮  |   ১৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রায় ৩ গুন সুদ দেওয়ার পরও জিম্মি অসহায় পরিবার

  মো. রুম্মান হাওলাদার, পিরোজপুর

০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৩:০৫
প্রায় ৩ গুন সুদ দেওয়ার পরও জিম্মি অসহায় পরিবার
অসহায় পরিবার। ছবি : অধিকার

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় ১ লক্ষ টাকায় ২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা সুদ দেওয়ার পরেও আরও ২ লক্ষ টাকা সুদ দাবি করে ভুক্তভোগীর বসত ঘরে তালা মেরেছে প্রভাবশালী এক সুদ ব্যবসায়ী। কামাল মেকার নামে ওই ব্যবসায়ী দক্ষিণ আমড়াগাছিয়া গ্রামের মৃত হানিফ মুন্সীর ছেলে।

জানা গেছে, মঠবাড়িয়া উপজেলার হোগলপাতি গ্রামের আ. আজিজের পুত্র মো. খলিলুর রহমান দীর্ঘদিন প্রবাসে থেকে মাস খানেক পূর্বে দেশে আসেন। দেশে এসে মাহাবুব মেম্বারের বাড়ির পাশের নির্মাণাধীন নতুন বাড়িতে ওঠেন। বাড়িতে আসার পরই সুদের পাওনা টাকা দাবি করেন কামাল মেকার।

প্রবাসী খলিলুর রহমান সৌদী আরবে থাকতে কিডনি রোগে আক্রান্ত হন। এরপর বুকে ব্যথাসহ একাধিক সমস্যায় ভুকতে থাকেন। কোনো কাজ করতে না পারায় মালিক ছুটিতে দেশে পাঠায় তাকে।

দীর্ঘদিন আয়ের উৎস বন্ধ থাকায় খলিল নিঃস্ব হয়ে পড়েন। দুই ছেলে অলিউল্লাহ (২৩) ও সানাউল্লাহ (২১) গার্মেন্টসে কাজ করেও সামাল দিতে পারছে না সংসার। ছোট ছেলে মাহমুদউল্লাহকে ৭ বছর বয়সেও অর্থের অভাবে স্কুলে পাঠাতে পারেনি মা মাহমুদা বেগম।

মাহমুদা বেগম বলেন, আমার স্বামী অসুস্থ হওয়ার পর ২০১৭ সালে কামাল মেকারের নিকট থেকে ১ লক্ষ টাকা সুদে নেই। ১ লক্ষ টাকায় মাসে সুদ ১০ হাজার টাকা। বছরে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। আমি দুই বছরে কামাল মেকারকে ২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা সুদ হিসেবে পরিশোধ করি।

তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি আমার স্বামী খলিলুর রহমান বাড়িতে আসে। খবর পেয়ে কামাল মেকার টাকা নিতে আসলে আমি আসল ১ লক্ষ টাকা দিতে চাই। কিন্তু কামাল মেকার আরও ২ লক্ষ টাকা সুদসহ ৩ লক্ষ টাকা দাবি করে এবং আমাদের ঘরের ভিতর তালা মেরে আটকে রাখে। পরে ৯৯৯ এ ফোন দিলে পুলিশ আমাদের উদ্ধার করে। এখন আমরা নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি। ঘর থেকে বাহিরে নামলেই মারধর ও হুমকির শিকার হতে হয় ওই প্রভাবশালীর।

আরও পড়ুন : কালীগঞ্জে মোটা অঙ্কের টাকায় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

মঠবাড়িয়া থানার এসআই নুরুজ্জামান জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে তালা ভেঙে তাদেরকে উদ্ধার করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ওডি/এসএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড