• শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কয়রাবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন বাস্তবায়ন

  ওবায়দুল কবির সম্রাট, কয়রা

২৪ নভেম্বর ২০২১, ১৪:৩২
খুলনা
বেড়িবাঁধ পুননির্মাণ (ছবি : অধিকার)

খুলনার উপকূলীয় দক্ষিণাঞ্চল কয়রা উপজেলার অধিকাংশ জায়গার নদীর বাঁধ ভঙ্গুর, ঝুঁকিপূর্ণ এবং প্রতি বছর লোনা পানিতে প্লাবিত হয় উপজেলাটি। দুর্যোগপূর্ণ এ অঞ্চলে মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল টেকসই বেড়িবাঁধ।

অবশেষে কয়রাবাসী দীর্ঘ চাওয়া পাওয়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হত চলেছে। স্বস্তির নিশ্বাস এখন উপকূল জুড়ে। লোনা পানির অভিশাপ থেকে কয়রাকে মুক্ত করতে নদীতে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের বৃহৎ এক প্রকল্প পাশ হয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায়।

মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) একনেক চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শেরে বাংলা নগরস্থ এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেকের সভায় যুক্ত হন। মন্ত্রীপরিষদ, মন্ত্রীপরিষদ সচিবসহ সকলের অংশগ্রহণে কয়রা উপজেলার পোল্ডার নম্বর-১৪/১ টেকসই বাঁধ নির্মাণের ১১৭২ কোটি টাকার প্রকল্প পাশসহ ২৯ হাজার ৩৪৪ কোটি টাকার ১০ প্রকল্প অনুমোদন দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে উপকূলবাসীর দীর্ঘদিনের স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণের স্বপ্ন পূরণ হওয়ায় আনন্দে উচ্ছ্বসিত তারা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শেখ হেলাল এমপি, পরিকল্পনা মন্ত্রী আব্দুল মান্নান এমপি, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুক এমপি, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ.কে.এম এনামুল হক শামীম এমপি এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধি আলহাজ্ব আখতারুজ্জামান বাবু এমপিকে উপকূলীয় কয়রা-পাইকগাছাবাসী কৃতজ্ঞতা এবং অভিনন্দন জানিয়ে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করেছে।

জনসাধারণের ভাষ্যমতে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কানে অসহায় মানুষের কান্নার আওয়াজ পৌঁছালে তিনি কাউকে খালি হাতে ফিরিয়ে দেন না। সিডর, আইলা, আমফান, ইয়াস, ফনি, বুলবুলের আঘাতে বিধ্বস্ত কয়রা-পাইকগাছার মানুষের কান্নায় ব্যথিত স্থানীয় জনপ্রতিনিধির নিরলস পরিশ্রমের অবিস্মরণীয় অর্জন স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণ প্রকল্পের বরাদ্দ।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কয়রা সদরের নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান এস এম বাহারুল ইসলাম বলেন, প্রাকৃতিক সম্পদে পরিপূর্ণ এ অঞ্চলে ব্রিটিশ আমলের ভঙ্গুর বেড়িবাঁধের কারণে প্রকৃতির বিরূপ আচরণের প্রথম ও প্রত্যক্ষ শিকার সব সময়েই। বিগত ১২ বছরে সিডর, আইলা, আম্পান, ইয়াসে সুন্দরবন এবং ওই এলাকার মানুষ ও অন্যান্য প্রাণিসম্পদের ওপর দুর্বিষহ ও নেতিবাচক প্রভাব প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। টেঁকসই বেঁড়িবাধের মেগা এ প্রকল্প পাস হওয়ায় এ অঞ্চলে প্রকৃতির বিরূপ প্রভাবের হাত থেকে রক্ষাসহ অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সামগ্রিক উন্নয়ন তরান্বিত হবে।

সাতক্ষীরা ডিভিশন ২ এর সেকশন অফিসার মশিউল আবেদীন জানান, বেড়িবাঁধ প্রকল্পের আওতায় রয়েছে দক্ষিণ বেদকাশী ইউনিয়ন ও উত্তর বেদকাশী ইউনিয়নের প্রায় ৩২ কিলোমিটার বাঁধ সংস্কার ও পুননির্মাণ। পুরানো কিছু ব্লকের সংস্কারসহ মাটি, জিওব্যাগ দিয়ে নতুনভাবে নির্মাণ, বাঁধে ব্লক ডাম্পিং, ব্লক স্থাপন প্রক্রিয়া রয়েছে এ প্রকল্পের আওতায়। ২০২২ সালের শুরুতে প্রকল্পটির বাস্তবায়ন কাজ শুরু হবে। যা ২০২৪ সালের জুনে শেষ হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

তথ্যানুসন্ধানে ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, কয়রা-পাইকগাছার গণ-মানুষের অভিভাবক আলহাজ্ব আখতারুজ্জামান বাবু কয়রা-পাইকগাছার বন্যা কবলিত লোনা পানির মানুষের দুর্দশার চিত্র বারবার জাতীয় সংসদে তুলে ধরেছেন। উপকূলের অবহেলিত জনসাধারণের লোনা পানির ছোবল থেকে বাঁচাতে ছুটে বেড়িয়েছেন মন্ত্রণালয় থেকে সচিবালয় পর্যন্ত।

বিধ্বস্ত উপকূলবাসীর হা-হুতাশ, হাহাকারের আর্তনাদ খুলনা শহরসহ রাজধানী ঢাকাতে বিভিন্ন আলোচনা সভা, সেমিনার, সিম্পোজিয়াম, মতবিনিময় সভা আয়োজনের মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনা ও ঊর্ধ্বতন মহলের কাছে তুলে ধরেছেন। টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে এমপি বাবু জাতীয় পর্যায়ে জনমত গঠন করতে দিনরাত পরিশ্রম করেছেন। যার ফসল আজকের বেড়িবাঁধ নির্মাণের বৃহৎ প্রকল্প পাশ।

আরও পড়ুন : কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যায় আসামি সুমন গ্রেফতার

এ বিষয়ে খুলনা-৬ সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান বাবু বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন ও ঝড়-জলোচ্ছ্বাসসহ নানা কারণে উপকূলীয় বাঁধগুলো মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পোল্ডারিংয়ের কার্যকারিতা বিলোপ হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে পোল্ডার এলাকাকে রক্ষা করতে হলে স্থায়ী বাঁধ, টেকসই বেড়িবাঁধ তৈরি অপরিহার্য হয়ে পড়েছে।

বিষয়টি নিয়ে আমরা দীর্ঘদিন ঊধ্বর্তন মহলে কথা বলেছি। উপকূলীয় এ অঞ্চলের জনগণের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ও আকাঙ্ক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার টেকসই বেড়িবাঁধ সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে।

যার অংশ হিসেবে এই প্রকল্পটি পাশ হয়েছে। পর্যায়ক্রমে পুরো উপকূলীয় এলাকাকে টেকসই বেড়িবাঁধের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ওডি/এফই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড