• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

গাইবান্ধায় ১৬ বছর ধরে একই ব্যক্তি এলজিইডির প্রকৌশলী

  রফিকুল ইসলাম রফিক, গাইবান্ধা

২১ নভেম্বর ২০২১, ১৬:৪৬
নির্বাহী প্রকৌশলী ছাবিউল ইসলাম
নির্বাহী প্রকৌশলী ছাবিউল ইসলাম (ছবি : অধিকার)

গাইবান্ধা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী ছাবিউল ইসলাম একই জেলায় ১৬ বছর ধরে কর্মরত আছেন। ফলে স্থানীয় ঠিকাদাররা তার কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। অথচ চাকরিবিধি অনুযায়ী, একজন সরকারি কর্মকর্তা একই কর্মস্থলে টানা তিন বছরের বেশি থাকার কথা নয়।

গাইবান্ধা এলজিইডি, সাঘাটা উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মো. ছাবিউল ইসলামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলায়। অবশ্য বর্তমানে তিনি রাজশাহী নগরে বিশাল বাড়ি করেছেন। তিনি ২০০৫ সালের ২১ ডিসেম্বর উপজেলা প্রকৌশলী হিসেবে সাঘাটায় যোগদান করেন। সেখানে কর্মরত থাকেন ২০২০ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এই কর্মস্থলে দায়িত্ব পালন করেন টানা ১৪ বছর ১ মাস ২২ দিন।

এরপর জ্যেষ্ঠ সহকারী প্রকৌশলী হিসেবে এলজিইডি গাইবান্ধা জেলা কার্যালয়ে যোগ দেন করেন তিনি। এখানে ১ বছর ৬ মাস ২৮ দিন দায়িত্ব পালন করেন। একই সালের (২০২০ সাল) ১২ ফেব্রুয়ারি থেকে চলতি বছরের ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি সাঘাটা উপজেলায় (উপজেলা প্রকৌশলী) অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করেন। ছাবিউল ইসলাম নির্বাহী প্রকৌশলী হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে চলতি বছরের ১২ সেপ্টেম্বর বরিশাল জেলায় যোগ দেন। সেখানে মাত্র ২৩ দিন দায়িত্ব পালন করে তদবিরের মাধ্যমে গত ৬ অক্টোবর গাইবান্ধায় বদলি নেন। পরদিন ৭ অক্টোবর তিনি গাইবান্ধা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী হিসেবে যোগদান করেন এবং ৮ নভেম্বর পূর্ববর্তী নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছ থেকে দায়িত্ব বুঝে নেন। অথচ সরকারি চাকরিবিধি অনুযায়ী, একজন সরকারি কর্মকর্তা একই কর্মস্থলে টানা তিন বছরের বেশি থাকার কথা নয়। কিন্তু এই বিধি উপেক্ষা করে টানা প্রায় ১৬ বছর ধরে এক জেলাতেই ঘুরেফিরে দায়িত্ব পালন করছেন প্রকৌশলী ছাবিউল ইসলাম।

চাকরিবিধি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিন বলেন, ‘একজন সরকারি কর্মকর্তা এক কর্মস্থলে তিন বছর থাকলে তাকে বদলি করতে হয়।’ ছাবিউলের বিষয়টি অবগত করলে গাইবান্ধা সনাকের (টিআইবি পরিচালিত) সদস্য সাখাওয়াৎ হোসেন বলেন, ‘এমনিতেই এক উপজেলায় দীর্ঘসময় থাকা বিধিসম্মত হয়নি। তিনি সরকারি বিধি লঙ্ঘন করেছেন। উপরন্তু এলজিইডির জেলা কার্যালয়ে বদলি নিয়েছেন। ফলে এক জেলায় ঘুরেফিরে এতোদিন থাকায় নানা প্রশ্নের জন্ম দেয়।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সাঘাটা উপজেলার একজন ঠিকাদার বলেন, সাঘাটায় দীর্ঘদিন থাকার কারণে ওই প্রকৌশলী নানা অনিয়মে জড়িয়ে পড়েছিলেন। বিশেষত তার প্রভাবের কারণে ঠিকাদাররা তার কাছে জিম্মি ছিলেন। এখন এলজিইডির জেলা কার্যালয় থেকেও প্রভাব খাটানোর আশঙ্কা রয়েছে।

গাইবান্ধা নাগরিক মঞ্চের সদস্য সচিব ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম বলেন, যে কর্মকর্তা দীর্ঘসময় ঘুরেফিরে একই জায়গায় থাকেন তার মধ্যে অসৎ উদ্দেশ্য থাকে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে গাইবান্ধা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী ছাবিউল ইসলাম তদবির করে একই জেলায় ১৬ বছর থাকা ও অনিয়মে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি জানান, তার উন্নয়ন কাজে সন্তুষ্ট ছিলেন স্থানীয় সাংসদ (গাইবান্ধা-৫, সাঘাটা-ফুলছড়ি আসন) ও জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া। তিনিই এলজিইডির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করে দীর্ঘদিন তাকে সাঘাটায় রেখেছেন।

এ বিষয়ে ডেপুটি স্পিকারের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু চিকিৎসার জন্য তিনি যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড