• সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভালুকায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সড়ক নির্মাণ

  মিজানুর রহমান মজনু, ভালুকা, ময়মনসিংহ

১৯ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৩৭
আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সড়ক নির্মাণ (ছবি : অধিকার)

আদালতের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় সড়ক নির্মাণ করেছে স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) ভালুকা মডেল থানার এসআই বিকাশ চন্দ্র সরকার মুঠোফোনে দৈনিক অধিকারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে শনিবার (১৩ নভেম্বর) সকাল ৯ টার দিকে উপজেলার মল্লিকবাড়ি ইউনিয়নের ধামশুর গ্রামের এ ঘটনা ঘটে। ওই দিনই শ্রী রঞ্জিত রবিদাস নিজে বাদী হয়ে ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ভালুকা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযুক্তরা হলেন- ভালুকা উপজেলার মল্লিকবাড়ি ইউনিয়নের ধামশুর গ্রামের কুদ্দুছ ফকির (৫০), রাসেল ফকির (৩৫), মো. ফরিদ ফকির (২৮), কবির ফকির (২২), নাজিম উদ্দিন ফকির (৬২) ও মো. হারিছ ফকির (৪৮)। তারা সবাই একই এলাকার।

থানায় লিখিত বিবরণে জানা যায়, শ্রী রঞ্জিত রবিদাস ও কুদ্দুছ ফকিরগণ পাশাপাশি বসবাস করে তারা। কুদ্দুছ ফকিরগণ দীর্ঘদিন ধরে রঞ্জিত রবিদাসের ক্রয়কৃত সম্পত্তি ধামশুর মৌজায় মালিক খতিয়ান নম্বর ১৭, এস.এ-১৩৮ শ্রেণি-কান্দা, জমির পরিমাণ ২৬ শতাংশের কাতে ১১ শতাংশ জমি বেদখল করার জন্য নানাভাবে পাঁয়তারা করে আসতেছিল। ওই জমির বিষয় নিয়ে ইতোপূর্বে আদালতে মামলা দায়ের করেন রবিদাস, যার মোকাদ্দমা নম্বর ৬২০/২১।

পরবর্তীতে আদালত থেকে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা করে ওই জমির ওপর। আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গত ১৩ নভেম্বর সকাল আনুমানিক নয়টার দিকে ওই জমিতে ইট-বালু দিয়ে রাস্তার নির্মাণকাজ শুরু করে। এ সময় খবর পেয়ে রাস্তার কাজে বাঁধা দিলে কুদ্দুছ ফকিরগণ লাঠি নিয়ে রঞ্জিতের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে আসে।

ভুক্তভোগী শ্রী রঞ্জিত রবিদাস দৈনিক অধিকারকে বলেন, আমার বাবা শিবচরন রবিদাস ১৯৬৯ সনে আরোর মূলে ১১ শতাংশ জমি জায়মন নেছা বিবির কাছ থেকে ক্রয় করেন। ওই জায়গা ক্রয় করার পর বাবা ভূমি অফিস থেকে নাম খারিজ করে। যার নম্বর ১১৬০। কুদ্দুছ ফকিরদের চলাচলের রাস্তা ছিল আমাদের জমির পশ্চিম পাশ দিয়ে। ওই রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে আমাদের জায়গার ওপর নতুন করে রাস্তা করেছে তারা। রাস্তার কাজে বাঁধা দিলে বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধমকি দেয় এবং ভয়-ভীতি দেখায়। যার ফলে আমরা মারামারির ভয়ে কোনো কিছুই করি নাই। সংখ্যালঘু মানুষ আমরা এখন আতঙ্কে আছি।

আরও পড়ুন : খেজুর রস থেকে গুড় তৈরিতে ব্যস্ত রাণীনগরের গাছিরা

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত মো. হারিছ ফকির মুঠোফোনে দৈনিক অধিকারকে বলেন, ‘অহন একটা মামলা দিয়েছে আদালতে। আমরা হাজিরা দিবার গিয়েছি ১১ তারিখ। তারা ৯ তারিখ মামলা প্রত্যাহার করেছে। পরের দিন মেম্বার বলেছে তোমরা রাস্তা করো।’

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড