• বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রূপগঞ্জে নৌকা প্রতীকের সমর্থকদের উপর বিদ্রোহী প্রার্থীর হামলা

  সাইদুর রহমান, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)

২৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:০৪
রূপগঞ্জে নৌকা প্রতীকের সমর্থকদের উপর বিদ্রোহী প্রার্থীর হামলা
প্রতীকী ছবি

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে হুমকিস্বরুপ শ্লোগান দেয়াকে কেন্দ্র করে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকদের উপর আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা চালায়।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাত ৭টার দিকে উপজেলার কায়েত পাড়া ইউনিয়নের নাওড়া এলাকায় ঘটে এসব ঘটনা।

এ সময় ককটেল বিস্ফোরণ ও ফাঁকা গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। হামলায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর অন্তত ১০ সমর্থক আহত হয়েছে বলে তারা দাবি করেছেন। ঘটনাস্থল থেকে ককটেল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকেনো সময় সংঘর্ষের আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী।

নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহেদ আলীর সমর্থক জোৎস্না আরা বেগম অভিযোগ করে জানান, তিনি কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী মহিলা লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এছাড়া তিনিসহ বর্তমান মেম্বার মোশারফ হোসেনও মেম্বার প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছেন। বুধবার ছিল প্রতীক বরাদ্দ। সন্ধ্যায় নৌকা প্রতীকের পক্ষে জোৎস্না আরা বেগম ও মোশারফ হোসেনসহ দলীয় সমর্থকরা নাওড়া এলাকায় আনন্দ মিছিল বের করেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতীক মিজানুর রহমান মিজানের উপস্থিতিতে জসিম উদ্দিন জসুর নেতৃত্বে তাদের লোকজন অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ”অ্যাকশন অ্যাকশন ডাইরেক অ্যাকশন, হাত-পা কাটাইলা, চোখ খোলাইলা”এ ধরনের হুমকিস্বরূপ শ্লোগান দিয়ে পাল্টা মিছিল বের করেন। এক পর্যায়ে নৌকা প্রতিকের সমর্থকদের উপর অতর্কিত হামলা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে।

এ সময় বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ও ফাঁকা গুলি বর্ষণ ঘটিয়ে আতঙ্কের সৃষ্টি করে বলে নৌকা প্রতিকের সমর্থকরা দাবি করেন। হামলায় ওয়াসিম, আমির হামজা, ফজলুল হক, দুলাল, ডাগুসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ একটি ককটেল উদ্ধার করে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আনারস প্রতীকের প্রার্থী মিজানুর রহমান মিজানের সঙ্গে তার সেল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্যে করতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে জানতে রাত সোয়া ৮টায় রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদের সঙ্গে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসার মাহাবুবুর রহমান বলেন, এ ধরনের ঘটনার সংবাদ আমরা পাইনি। তবে এ বিষয় দেখবে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা। তারা ব্যবস্থা নিবে। তারপরও আমরা খবর নিচ্ছি।

উল্লেখ্য, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ৭জন প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

ওডি/ এসএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড