• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুমিল্লায় কোরআন অবমাননা

চাঁদপুরে পুলিশের গুলিতে আরও এক মৃত্যু, ১৪৪ ধারা বহাল

  শিহাবুদ্দীন সেলিম, চাঁদপুর

১৪ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৩
সংঘর্ষ
সংঘর্ষের ঘটনায় আহতরা। ছবি : অধিকার

কুমিল্লায় মন্দিরে কোরআন অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভকালে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে জনতার সাথে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ শামীম (১৯) নামে আরও এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ওই সংঘর্ষের ঘটনায় মোট চারজনের মৃত্যু হলো।

গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) ওই কিশোরের মৃত্যু হয়।

এর আগে বুধবার (১৩ অক্টোবর) রাতে কুমিল্লায় কোরআন অবমাননার ঘটনার প্রতিবাদে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ বাজারে জনতা বিক্ষোভ শুরু করে। পরে বিক্ষুব্ধ জনতার মিছিল ও একাধিক মন্দিরে হামলার ঘটনায় পুলিশি বাধার মুখে ওই সংঘর্ষ ঘটে।

নিহতরা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সুন্দরপুর বাগডাঙ্গা এলাকার সামছুর রহমানের ছেলে ও হোটেল শ্রমিক বাবলু (৩৫), হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার ১১ নম্বর ওয়ার্ডের রান্ধুনী মুড়ার শুকু কমিশনার বাড়ির তাজুল ইসলামের ছেলে আল আমিন (১৮), একই ওয়ার্ডের সেকান্দর বেপারি বাড়ির মো. ফজলুর ছেলে হৃদয় (১৪) এবং রান্ধুনী মুড়া গ্রামের বাসিন্দা শামীম (১৯)।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমার্জেন্সি বিভাগের মেডিক্যাল অফিসার সুলতান মাহমুদ দৈনিক অধিকারকে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও এক কিশোরের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কুমিল্লায় কোরআন অবমাননার ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার এশার নামাজের পর আনুমানিক রাত সাড়ে ৮টার দিকে হাজীগঞ্জ বাজারের স্থানীয় জনতা মিছিল নিয়ে লক্ষ্মী নারায়ণ জিউর আখড়া ও পার্শ্ববর্তী আশ্রমে হামলা করে। ওই সময় পুলিশ এগিয়ে আসলে তাদের ওপর হামলাসহ পুলিশের একটি গাড়ি আগুন দিয়ে জালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে বিক্ষুব্ধ জনতা। এতে পুলিশ ও জনতার মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

পরবর্তীকালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ গুলি নিক্ষেপ করে। ওই সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ, সাংবাদিক ও পথচারীসহ অন্তত ২০ জন আহত হন। এরমধ্যে গুরুতর আহত বাবলু, আল-আমিন ও হৃদয়কে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক দুইজনকে মৃত ঘোষণা করেন এবং শামীম কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

এ ব্যাপারে হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারনুর রশিদ দৈনিক অধিকারকে বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঘোষিত অনির্দিষ্টকালের ১৪৪ ধারা বহাল রয়েছে।

আরও পড়ুন : বাঁশের সাঁকোই ৪০ হাজার মানুষের একমাত্র ভরসা

এ দিকে, বৃহস্পতিবার পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. ইকবাল হোসেন, চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, হাজীগঞ্জ উপজেলা টিএনও মোমেনা আক্তার, চাঁদপুর সদর সার্কেল সুদিপ্ত রায়, হাজীগঞ্জ পৌর মেয়র মাহবুবুল আলম লিপন প্রমুখ উপজেলার বিভিন্ন মন্দির পরিদর্শন করেছেন।

ওডি/নিলয়

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড