• মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সোনারগাঁয়ে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ৩

  নজরুল ইসলাম শুভ, সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ)

১৩ অক্টোবর ২০২১, ১১:২৭
সোনারগাঁ
(ছবি : সংগৃহীত)

চট্টগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামী থেকে এক পোশাক কর্মীকে অপহরণের পর নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ঝাউচর গ্রামে নিয়ে ধর্ষণ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকালে ওই তরুণীর পিতা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরনীতে উল্লেখ ও তরুনীর বাবা উল্লেখ করেন, তার মেয়ে একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করত। শনিবার (৯ অক্টোবর) রাত ৯টায় কারখানা থেকে কাজ শেষে ফেরার পথে ওই তরুণী গেইট এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়। পরে বিভিন্ন স্থানে তাকে খুঁজে না পেয়ে পরের দিন বায়েজিদ বোস্তামী থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

পরে সোমবার রাত ১১টায় তার দুসম্পর্কের ভাতিজা তরুণীর বাবার মুঠোফোনে জানায়, তার মেয়েকে অপহরণ করে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর এলাকার ঝাউচর গ্রামের সাগর মিয়ার ভাড়া বাড়িতে তৈয়ব হোসেন ও তার বন্ধুরা আটকে রেখে ধর্ষণ করেছে। ধর্ষণের ফলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হলে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে তরুণীকে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তৈয়ব হোসেন, তার দুই বন্ধু হাসান মিয়া ও আমজাদ হোসেন রায়হানকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃত তৈয়ব হোসেন কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার বায়েরা গ্রামের জালাল মিয়ার ছেলে, হাসান একই এলাকার ভবানীপুর গ্রামের লাতু মিয়ার ছেলে এবং আমজাদ হোসেন রায়হান নোয়াখালীর হুগলি এলাকার মহিতুল্লার ছেলে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা নেওয়া হয়েছে। পুলিশ প্রধান আসামিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে।

ওডি/এফই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড