• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মা হারা দুই শিশুর পিতাকে সহযোগিতা করলেন ইউএনও

  শা‌কিল মুরাদ, শেরপুর

১৩ অক্টোবর ২০২১, ১০:২৪
মা হারা দুই শিশুর পা‌শে ইউএনও
হোটেল ব্যবসার যাবতীয় জিনিসপত্র দেওয়া হয়েছে (ছবি : দৈনিক অধিকার)

শেরপুরের শ্রীবরদীতে মা হারা দুই শিশুর পিতা শহিদুল ইসলামকে নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য হোটেল ব্যবসার যাবতীয় জিনিসপত্র দিয়ে সহযোগিতা করলেন (ইউএনও) শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিলুফা আক্তার।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে ওই মাতৃহারা দুই শিশুর পিতাকে হোটেল ব্যবসার সকল সরঞ্জাম প্রদান করা হয়।

অসহায় শিশুদের পিতা শহিদুল ইসলাম বলেন, ইউএনও স্যার আমাকে হোটেল ব্যবসার জন্য চেয়ার, টেবিল, কড়াই, চায়ের কেতলি, গ্যাস সিলিন্ডার, পানির বালতি, পানির ড্রাম, খন্তিসহ সকল সরঞ্জাম ও প্রাথমিক মূলধন দিয়েছেন। আমি এসব জিনিস নিয়ে সঠিক ভাবে ব্যবসা করব এবং নিজের পায়ে দাঁড়াব। স্যার আমাকে অনেক সহযোগিতা করেছে। আমি স্যারের জন্য দোয়া করব। আজ আমি অনেক খুশি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিলুফা আক্তার বলেন, লকডাউনের সময় তাদেরকে আমি পরিত্যক্ত ভবনে অসহায় অবস্থায় দেখতে পাই। পরে তাদের খাদ্য সামগ্রী সহ বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করে আসছি। বিষয়টি স্থায়ী ভাবে সমাধানের জন্য আমার সকল অফিসারদের বললে তারা এগিয়ে আসে। এ মহত কাজে এগিয়ে আসার জন্য তিনি সকল অফিসারদের ধন্যবাদ জানান।

তিনি আরও বলেন, মাতৃহারা শিশুদের পাশে দাঁড়াতে পেরে খুবই আনন্দ লাগছে। ভবিষ্যতেও ছিন্নমূল, অসহায় পরিবারের মাঝে এই ধরনের সহযোগিতা করার চেষ্টা করব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডিএম শহিদুল ইসলাম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রুহুল আলম তালুকদার, উপজেলা কৃষি অফিসার হুমায়ুন দিলদার, উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান, উপজেলা একাডেমি সুপারভাইজার মোশারফ হোসেন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফাতেমাতুজ্জহুরাসহ উপজেলা অফিসার ক্লাবের সকল সদস্যবৃন্দ।

উল্লেখ, শিশু সানজিদা আক্তার (৩) ও শান্তা আক্তারকে (১১) নিয়ে শ্রীবরদীতে অতিকষ্টে দিনাতিপাত করছে তাদের পিতা শহীদুল ইসলাম। শিশু দুইটির মা হঠাৎ আড়াই বছর আগে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। এরপর থেকে কুড়িকাহনিয়া বাজারে ইউনিয়ন কৃষি অফিসের পরিত্যক্ত বিল্ডিংয়ের একটি রুমে শহীদুল তার দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে জীবনযাপন করছেন।

শারীরিকভাবে অসুস্থ শহীদুলের মায়ের একমাত্র ভিটে বাড়িতে একটি টিনের ঘর আছে। কিন্তু সেটি বসবাসের অনুপযোগি হওয়ায় কুড়িকাহনিয়া বাজারে কৃষি অফিসের পরিত্যক্ত বিল্ডিং এ দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে বসবাস করে।

কিছুদিন আগে কুড়িকাহনিয়া বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় তাদেরকে দেখতে পান শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিলুফা আক্তার। ভ্রাম্যমাণ আদালতের গাড়ি দেখে সবাই চলে গেলেও তারা সেখানেই বসে থা‌কে।

আরও পড়ুন : খাগড়াছড়িতে জাতীয় শ্রমিক লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

এ সময় ইউএনও গিয়ে তাদের সঙ্গে কথা বললে দুরবস্থার কথা জানতে পারেন। পরে (৮ জুলাই) তাদেরকে খাদ্য সামগ্রী, পোশাক ও আর্থিক সহায়তা করেন।

ওডি/এসএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড