• শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুমিল্লায় প্রাথমিকে গড়ে ১৫ শতাংশ শিক্ষার্থী অনুপস্থিত

  রেজাউল করিম রাসেল, কুমিল্লা

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১১
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ছবি : সংগৃহীত)

কুমিল্লা জেলায় এখনো প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে গড়ে ১৫ শতাংশ শিক্ষার্থী অনুপস্থিত থাকছে। এর মধ্যে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের হার ৯০ শতাংশের উপরে থাকলেও প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অনুপস্থিতির হার বেশি। অন্যদিকে জেলায় ১ হাজার ৯শ ৭টি কিন্ডার গার্টেনের মধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে ২শ ১১টি কিন্ডারগার্টেন। এসব কিন্ডার গার্টেন যদি আর না খুলে তাহলে তাদের শিক্ষার্থীদের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উপ-আনুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় এনে আবারও স্কুলে ফিরিয়ে আনার কথা জানিয়েছে জেলা শিক্ষা বিভাগ।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল মান্নান জানান, প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে পঞ্চম শ্রেণি বাদে অন্যান্য ক্লাসে শিক্ষার্থী উপস্থিতির হার আনুমানিক ৮৫ শতাংশ। পঞ্চম শ্রেণিতে উপস্থিতির সংখ্যা বেশি। প্রতিদিনই প্রতিটি স্কুল থেকে উপস্থিতির সংখ্যা এবং অনুপস্থিতির সংখ্যা লিপিবদ্ধ করা হচ্ছে। যারাই আসছে না তাদের বিষয়ে খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। কেন শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নেই, সেই বিষয়ে জানানোর জন্য শিক্ষকদের নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকে বাল্যবিবাহের ঘটনা তেমন নেই। ঝরেপড়া কিংবা অসুস্থতার কারণে এই অনুপস্থিতি হতে পারে। উপজেলাগুলোর মধ্যে মেঘনা উপজেলাসহ প্রত্যন্ত উপজেলার স্কুলগুলো পিছিয়ে আছে। এ বিষয়গুলো বিশেষভাবে নজরদারি করা হচ্ছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সূত্র মতে, রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) একদিনে কুমিল্লা সদর উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে তৃতীয় শ্রেণিতে ৬ হাজার ৭শ ২৬ জন শিক্ষার্থীর বিপরীতে উপস্থিত ছিল ৪ হাজার ৫ শ ৪২ জন। অর্থাৎ উপজেলাটির তৃতীয় শ্রেণির প্রায় ৩৩ শতাংশ শিক্ষার্থী ক্লাসে আসেনি। অপর দিকে পঞ্চম শ্রেণির ৬ হাজার ৪শ ৯ জন শিক্ষার্থীর বিপরীতে উপস্থিত ছিল ৪ হাজার ৬শ ১৮ জন। ক্লাসে আসেনি প্রায় ২৮ শতাংশ শিক্ষার্থী।

চলতি বছরের জুলাই মাসের তথ্য অনুসারে, কুমিল্লা জেলায় প্রাথমিকে গমন উপযোগী শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৮ লাখ ৮৫ হাজার ৯০৫ জন। যার মধ্যে ভর্তি হয়েছিল ৮ লাখ ৮১ হাজার ৪৩৯জন। জেলায় মোট প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ২ হাজার ১০৬টি। প্রতিটি স্কুলের প্রতি শিফটে এবং ক্লাসে প্রতিদিন কি পরিমাণ ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত থাকছে সে বিষয়ে প্রতিদিনই তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন : গ্রীন লাইন নিয়ে অভিযোগ প্রশাসনে, ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল মান্নান আরও জানান, ঝরেপড়া বা অর্থনৈতিকভাবে অস্বচ্ছল পরিবারের শিক্ষার্থীদেরকে আবারও স্কুলে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে সরকার কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। শুধু স্কুলের শিক্ষকরাই নয়, অভিভাবকদেরও এই বিষয়ে সচেতন হতে হবে। যাদের কিন্ডারগার্টেন স্কুল বন্ধ হয়ে গেছে সেসব শিক্ষার্থীদেরকে দ্বিতীয় সুযোগ দেয়া হবে। উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতায় আউট অব স্কুল চিলড্রেন কর্মসূচির আওতায় শিক্ষার্থীদের আবারও শিক্ষাজীবনে ফিরিয়ে আনা হবে।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড