• বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নারী উদ্যোক্তা ফাতেমার গল্প

  কাজী হুমায়ুন কবির, চট্টগ্রাম

১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:০৮
সফল ব্যবসায়ী ফাতেমা বেগম (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চট্টগ্রামে যে ক’জন নারী উদ্যোক্তা ও সফল ব্যবসায়ী সুনাম অর্জন করেছেন তার মধ্যে ফাতেমা বেগম অন্যতম। ইতোমধ্যে তার কাজ ও দক্ষতা দিয়ে সুনামের সাথে চট্টগ্রামে সফল নারী উদ্যোক্তা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হিসাবে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন। যিনি নিজের মেধা, শ্রম ও সাধনা দিয়ে সাফল্যর সিঁড়ি ডিঙ্গিয়ে চট্টগ্রামে একের পর এক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান করে যাচ্ছেন।

এই প্রতিবেদকের সাথে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ২০০৭ সালে চট্টগ্রামের চকবাজারে ‘ফাতেমা ডিপার্টমেন্টাল ষ্টোর’ নাম দিয়ে প্রথম ব্যবসা শুরু করি। এরই মধ্যে অসুস্থতায় স্বামী জয়নাল আবেদীন মারা যান। প্রিয় স্বামীকে হারিয়ে ২ কন্যা ও ১ পুত্রসন্তান নিয়ে দমে যাইনি আমি। নিজের ধৈর্য, সততা, কর্মদক্ষতা ও পরিশ্রম দিয়ে সুনামের সাথে ব্যবসা করে সুগন্ধা আবাসিক এলাকায় গড়ে তুলি ডেইলী ফেয়ার শপ, রহিম স্যানিটারিজ নামে দুটি প্রতিষ্ঠান। তারপর একে একে বাড়তে থাকে প্রতিষ্ঠানগুলোর শাখা। অনেক লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়। আমারও আস্থার জায়গা বাড়তে থাকে।

ব্যবসায়িক জীবনে কোনো প্রতিকূলতার সম্মুখীন হয়েছেন কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনেক প্রতিকূলতা ও ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি। তা আবার সামলেও নিয়েছি। অনেক সময় ব্যবসায়িক কারণে পরিবারের সদস্যদের সময় দিতে না পারলে খুবই খারাপ লাগে। তবে ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে পরিবার ও অনেক বন্ধুদের সহযোগিতাও পেয়েছি।

উইমেন চেম্বারের সদস্য কখন হলেন? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ব্যবসা শুরুর পরের বছর ২০০৮ সালে নারী উদ্যক্তা ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বারের সভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলীর হাত ধরে উইমেন চেম্বারে যোগদান করি। প্রথমতো ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। তারপর নিজেকে সামলে নিয়ে সাহসের সাথে এগিয়ে যাই। আমার ব্যবসায়ীক সফলতায় অল্প সময়ের মধ্যে চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বার ও কমার্স ইন্ডাষ্ট্রিজের পরিচালক নিযুক্ত হই। ২০১৮ সালে ইন্টারন্যাশনাল ইউমেন এক্সপো এসএমই মেলায় চট্টগ্রামের শ্রেষ্ঠ নারী ও শিল্প উদ্যেক্তা ও ব্যবসায়ী হিসাবে বিশেষ সম্মাননা ও পুরস্কার লাভ করি। সেই সাথে ইন্টারন্যাশনাল ওমেন এন্ট্রেপ্রেনিউরিয়াল চ্যালেঞ্জ ফাউন্ডেশন ২০২০ অ্যাওয়ার্ড পাই। সামাজিক সংগঠন প্রয়াসের পক্ষ থেকেও ২০২০ অ্যাওয়ার্ড পাই। শুধু তাই নয়, আমি নারী উদ্যোক্তা হিসাবে বাংলাদেশের পেইন্টার শিল্পে বার্জারের চট্টগ্রামে একমাত্র নারী ডিলার হিসাবে ব্যাপক সুনাম অর্জন করি।

নারীদের ব্যবসায়ীক ক্ষেত্রে এগিয়ে আসা ও সফলতা নিয়ে তিনি বলেন, নারীরা যেসব ক্ষেত্রে এগিয়ে এসেছে সর্বত্রই সফল হচ্ছে। তাই নারীদের সাহস করে দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে এগিয়ে আসতে হবে। পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও যদি সমমর্যাদায় কাজ করে তবে দেশের চেহারা বদলে যাবে। বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ একটি উন্নয়নের মডেল রাষ্ট্র হিসাবে স্বীকৃত হবে।

জানা যায়, ফাতেমা বেগম চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার সুন্দরপুর ই্উনিয়নের পূর্ব আজিমপুর গ্রামে ১৯৮১ সালের ১ জানুয়ারি এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আলহাজ বজলুর রহিম ফটিকছড়ির সফল ব্যবসায়ী। বর্তমানে দেশের পাশাপাশি সংযুক্ত আরব আমিরাতেও ফাতেমা বেগম তার ব্যবসার প্রসার করেছেন। ব্যবসার পাশাপাশি যেমন তিনি সামাজিক কর্মকাণ্ড করেন, তেমনি বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ান। করোনাকালীন সময়ে নিম্ন আয় ও ১০০০ পরিবারকে ১০ ট্রাক ভর্তুকি মূল্যে পণ্য সরবরাহসহ মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটারি বিতরণ করেছেন। বর্তমানে দেশের জলবায়ুর বিপর্যয় রোধে কাজ করার জন্য সবুজ আন্দোলনের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেছেন।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড