• বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পত্নীতলায় অ্যাসাইনমেন্ট অনিয়মে প্রধান শিক্ষককে শোকজ

  রেজা রায়হান, পত্নীতলা (নওগাঁ)

০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৪
বিদ্যালয়ে
নাগরগোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে

নওগাঁর পত্নীতলায় নাগরগোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে অ্যাসাইনমেন্ট (প্রশ্নোত্তরপত্র) বিতরণে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। তদন্ত সাপেক্ষে শোকজ করা হয়েছে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষককে।

চলমান করোনার কারণে দেশের সকল স্কুল-কলেজ বন্ধ আছে। এমতাবস্থায় শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিক চর্চাকে ধরে রাখতে ওয়ার্কশিটের (প্রশ্নোত্তর পত্র) মাধ্যমে মূল্যায়নের ব্যবস্থা করবার নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষা অধিদফতর।

নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রত্যেক সপ্তাহে অ্যাসাইনমেন্ট দেয়ার কথা রয়েছ। তবে নাগরগোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অফির উদ্দিন শিক্ষা দফতরের সেই নিয়মকে তোয়াক্কা না করে নিজের তৈরি করা নিয়মে চালাচ্ছেন স্কুল। এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে আগের অনেক অভিযোগ রয়েছে এবং শোকজ হবার মতো ঘটনাও ঘটেছিল তখন।

শনিবার( ৪ সেপ্টেম্বর) বিদ্যালয়টি পরিদর্শনে যাবার তারিখ অব্দি শিক্ষার্থীদের মাঝে কোন ফি ছাড়াই মোট ১৬টি অ্যাসাইনমেন্ট দেয়ার কথা থাকলেও তার যথাযথ পালন করেনি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এতে বিদ্যালয়টির কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিক শিক্ষা চর্চা পড়েছে ব্যাপক হুমকির মুখে। এ নিয়ে চরম হতাশা প্রকাশ করেছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকগণ।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও একাধিক অভিভাবক জানান, এ পর্যন্ত শিক্ষকরা আমাদের সন্তানদের হাতে বড়জোর ৬ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট দিয়েছেন। এরপর আমাদের বাচ্চাদের কাছে আর কোনো ওয়ার্কশীট দেওয়া হয়নি।

ওয়ার্কশীট নিজ খরচে ফটোকপি করে সংগ্রহ করতে হচ্ছে বলেও অভিযোগ জানান তারা।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, করোনার কারণে ওয়ার্কশিট বিতরণে একটু অনিয়ম হয়েছে। এ সময় শোকজ হবার বিষয়টি স্বীকার করে তিনি নিউজ প্রকাশ না করার ইঙ্গিতে প্রতিবেদককে ম্যানেজ করার চেষ্টা চালান।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোখলেছুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমরা ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে এ বিষয়ে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছি। উপযুক্ত সদুত্তর না পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দিক মো. ইউসুফ রেজা'র সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এই বিষয়টি আমার জানা ছিল না আপনাদের মাধ্যমে বিষয়টি জানলাম। বিষয়টি খতিয়ে দেখব। অভিযোগ প্রমাণিত হলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন : ছদ্মবেশে ঘুরে ঘুরে চুরির টার্গেট করতেন তারা

শোকজ হবার বিষয়টি জেনে বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ডিডি রাজশাহী) মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রধান শিক্ষক শোকজের কি উত্তর দেন। সে বিষয়ে জেলা শিক্ষা অফিসারের নিকট খোঁজ নেব। সরকারি নিয়মের বাইরে কিছু হলে অবশ্যই বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ওডি/এসএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড