• সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চট্টগ্রামের দারুস সুন্নাহ এতিমখানায় দুর্নীতির অভিযোগ

  কাজী হুমায়ুন কবির, বিভাগীয় প্রধান, চট্টগ্রাম

০৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৫৬
;kjh
দারুস সুন্নাহ হাসানিয়া মাদ্রাসা এতিমখানা ও হেফজখানা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ এলাকায় দারুস সুন্নাহ হাসানিয়া মাদ্রাসা এতিমখানা ও হেফজখানার পরিচালনা কমিটির বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, তারা গেইটস্থ এতিমদের এই মাদ্রাসাটি ২০০০ সালে সমাজসেবা থেকে নিবন্ধিত হয়। জনগণের অনুদান ও সরকারের বরাদ্ধকৃত টাকা দিয়ে এই মাদ্রাসার ব্যয়ভার বহন হয়। বিগত বছরগুলোতে সেই টাকা নিয়ে দুর্নীতি বা অনিয়ম হওয়ায় জনমনেও ক্ষোভ ফুসছে। প্রতি দু'বছর পর পর মাদ্রাসাটির পরিচালনা কমিটির নির্বাচন হওয়ার নিয়ম থাকলেও তারা নির্বাচন না করে মেয়াদ শেষে পূর্ব কমিটির নেতৃবৃন্দরাই নিজেদের মতো নতুন করে পকেট কমিটি করে ফেলে। যার ফলে মাদ্রাসায় জনগনের অনুদানের টাকা ও সমাজসেবা কতৃক এতিমদের জন্য সরকারী বরাদ্দকৃত টাকা হিসাব না দিয়ে কেউ মুখ খুলতে পারেনা।

গত ২১ জুন ২০২১ ইং তারিখে বিলুপ্ত কমিটির সাবেক সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও অর্থ সম্পাদক তাদের পূর্ব পদ বহাল রেখে পুনরায় আরেকটি নতুন কমিটি করলে কমিটির অন্যান্য সদস্যরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। কমিটির অনেক সদস্যদের মধ্যে ক্ষোভ ও অসন্তোষ বাড়তে থাকে।

এই বিষয়ে সদস্য সেলিম রেজা বলেন, এই মাদ্রাসা এতিমদের, এখানে জনগণ ও সরকার থেকে যা অনুদান আসে তা এতিমদের হক। এই হক নিয়ে লুটতরাজ চলছে। নির্বাচন না দিয়ে সাবেক কমিটি নিজেদের পূর্ব পদ বহাল রেখে অনিয়ম ও দূর্নীতির স্বর্গরাজ্য কায়েম করছে। বর্তমানে ১০ লাখ টাকার একটা চেক রয়েছে সমাজসেবায়। সেটা তছরুপ করার ফন্দি করে এই পকেট কমিটি করেছে। আমরা তা মানিনা।

তিনি আরও বলেন, আমি নিজে বাদি হয়ে গত ২২ আগষ্ট ২০২১ তারিখে মাদ্রাসার নতুন কমিটির বিরুদ্ধে সমাজসেবায় অভিযোগ দিয়েছি। সমাজসেবা বলেছে, নির্বাচন করার জন্য দুর্নীতিবাজ কমিটির সবাইকে নোটিশ দিবে।

আরেক সদস্য সৈয়দুজ্জামান বলেন, এই এতিমখানা জনগণের টাকাতেই চলে। সমাজসেবা থেকে আসা অনুদান ওরা কোথায় খরচ করে তার কোন হিসাব দেয়না। মাদ্রাসার নতুন ভবন নির্মানের আয় ব্যয় হিসাব না দিয়ে তারা মেয়াদ শেষে আবার নিজেদের মতো করে নতুন কমিটি করেছে। আমিও এই কমিটির বিরুদ্ধে সমাজসেবায় অভিযোগ দিয়ে নতুন করে নির্বাচন চেয়েছি।

এই বিষয়ে অর্থ সম্পাদক ফিরোজ বলেন, এখানে কোন অনিয়ম দুর্নীতি নেই, কমিটি হওয়ার আগে আহবায়ক কমিটি করেছি। সেই কমিটির মাধ্যমে নতুন পূর্নাঙ্গ কমিটি হয়েছে। কমিটি নিয়ম মাফিক হয়েছে।

সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ চিশতী বলেন, যারা সমাজসেবায় অভিযোগ করেছে তারা বর্তমান কমিটির কেউ নয়। তাদের সদস্য পদ আগেই বাতিল করা হয়েছে। তারা অভিযোগ দেয়ার কেউ নয়।

আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খোরশেদ আলম বলেন, যথাযথ নিয়ম মেনে কমিটি হয়নি। বর্তমান সাধারন সম্পাদক শহীদুল্লাহ চিশতী এতিমখানার টাকার পূর্বেও কোনো হিসাব দিতে পারেনি। সে এই এতিমখানার টাকা দিয়ে এই পর্যন্ত তিনটি মাদ্রাসা করেছে। এ ছাড়া তার কোনো আয়ের উৎস নেই।

ওডি/

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড