• মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

হরিরামপুরে অবাধে চলছে রুইজাতীয় পোনা মাছ নিধন

  শুভংকর পোদ্দার, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ)

২৯ আগস্ট ২০২১, ২০:২১
আইন অমান্য করে মাছবিক্রি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলায় নদী খাল-বিলে বেড়ে ওঠা রুইজাতীয় মাছের পোনা অবাধে শিকার করা হচ্ছে। স্থানীয় হাট-বাজারে তা বিক্রি হচ্ছে প্রকাশ্যেই। নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল, চায়না দোয়ারি, বেড় জাল ও ভেসাল দিয়ে কতিপয় মৎস্যজীবী ও জেলেরা প্রতিদিনই পোনা মাছ ধরে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে অবাধে বিক্রি করলেও তা বন্ধে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেই উপজেলা মৎস্য দফতরের।

আইন অনুযায়ী, জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ৯ ইঞ্চির নিচে রুইজাতীয় মাছ ধরা ও বিক্রয় নিষিদ্ধ। অথচ হরিরামপুর উপজেলার হাট-বাজারগুলোতে নিয়মিতই বিক্রি হচ্ছে প্রচুর পোনা মাছ। ফলে উপজেলায় রুইজাতীয় মাছের বংশবৃদ্ধি ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে রুই, কাতলা, মৃগেল ও কালিবাউসের পোনা। বিশেষ করে উপজেলা সদরের লেছড়াগঞ্জ, আন্ধারমানিক ও কাণ্ঠাপাড়া বাজারে ক্রয়-বিক্রয় চলে সদ্য ধরে আনা পোনা মাছ। এছাড়াও, মানিকনগর, বাহিরচর, বাহাদুরপুর, কুটিরহাট, ভাদিয়াখোলা, মাচাইন, বাস্তা, বলড়া ও ঝিটকা বাজারেও প্রকাশ্যে বিক্রি হয় এই পোনা মাছ। এছাড়া অনেক জেলে পোনা মাছ ধরে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে বিক্রি করেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন মৎস্য ব্যবসায়ী বলেন, আমরা মাছ ধরি না। জেলেরা মাছ ধরে। তাদের কাছ থেকে কিনে আমরা বিক্রি করি। জেলেদের পোনা মাছ ধরা বন্ধ করতে হবে। উপজেলা মৎস্য দফরের নজর না রাখা এবং নিয়মিত অভিযান পরিচালনা না করার কারণে পোনা মাছ শিকার ও বিক্রি বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে মনে করেন তারা।

উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন বলেন, উপজেলার প্রায় প্রতিটি বাজারেই অবাধে পোনা মাছ বিক্রি হচ্ছে। এভাবে পোনা মাছ নিধন হতে থাকলে অদূর ভবিষ্যতে রুইজাতীয় মাছের আকাল দেখা দিতে পারে।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. সাইফুর রহমান বলেন, এ বছর তিনটি অভিযান এবং একটি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে। এতে তিনজনকে ১৫০০ টাকা জরিমানা এবং ১৩৫ কেজি পোনামাছ জব্দ করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে কথা বলে আমরা অল্প সময়ের মধ্যেই অভিযান চালাবো।

হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, আজকেও উপজেলা সমন্বয় সভায় এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। দ্রুতই উপজেলার প্রতিটি বাজারে সাইনবোর্ড-ব্যানার টানানোসহ অভিযান ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।

আরও পড়ুন : পল্লী বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মুসল্লির মৃত্যু

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. সাইফুর রহমান বলেন, পোনা মাছ ধরা ও বিক্রির বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করার দায়িত্ব উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার। আমি তাকে বলে দিচ্ছি ব্যবস্থা নেয়ার জন্য।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড