• বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পুলিশের কঠোরতার মধ্যেও সান্তাহারে মাদকের রমরমা কারবার

  নেহাল আহম্মেদ প্রান্ত, আদমদীঘি (বগুড়া)

২৭ আগস্ট ২০২১, ১৬:২৬
সান্তাহার রেলওয়ে জংশন
সান্তাহার রেলওয়ে জংশন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারের বিভিন্ন মহল্লায় অবাধে কেনাবেচা হচ্ছে ভারতীয় ফেনসিডিল,গাঁজা, ইয়াবাসহ নানা ধরণের মাদক।

সান্তাহারের ইয়ার্ড কলোনি, চা-বাগান, রথবাড়ী, আমবাগান, লকু কলোনি হার্ভের মোড়, স্টেশন চত্বর, বাসস্ট্যান্ড এলাকা, মাল গুদাম, সাহেব পাড়াসহ বসুন্ধরা বস্তির শতাধিক মানুষ ফেনসিডিল ও অন্যান্য মাদক কারবারে সঙ্গে জড়িত বলে জানা গেছে।

সান্তাহার রেলওয়ে জংশন হওয়ায় প্রতিদিন হিলি সীমান্ত দিয়ে ট্রেনে করে বিপুল পরিমাণ ফেনসিডিল, ইয়াবাসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য সান্তাহারে আসছে। ট্রেন থেকে এসব মাদকদ্রব্য নিয়ে যাওয়া হয় বিভিন্ন বস্তি ও মহল্লায়। পরে এসব মাদকদ্রব্যের কিছু স্থানীয়ভাবে বিক্রি করা হয়। আর বাকিটা পাইকারি মাদক বিক্রেতাদের কাছে বিক্রি করা হয়। পরে পাইকারি মাদক বিক্রেতারা এসব মাদক বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে যান। এর বাইরে সান্তাহার জংশন স্টেশনের প্লাটফর্মের উপরও প্রকাশ্যে চলে মাদক কেনা-বেচা।

আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে মাদক পাচারকারীরা প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কৌশল অবলম্বন করে মাদকের কারবার চলছে বলে অভিযোগ আসছে।

প্রায় প্রতিদিন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, পুলিশ, র‌্যাবের অভিযানে আটক হচ্ছে অনেক মাদক কারবারিরা। তারপরও মাদক কারবারিরা বাধাহীন ভাবে শুরু করছে ভয়ংকর মাদক, ফেন্সিডিল, গাঁজা, ইয়াবাসহ সকল ধরণের নেশা দ্রব্যের কারবারে।

এখানকার মাদক বিক্রেতারা বিভিন্ন বহিরাগত মাদক সেবনকারীদের অভয় দিয়ে বলেন, আপনারা এখানে নির্ভয়ে আসবেন আপনাদের কোন ভয় নাই। আমাদের এখানে কোন পুলিশ প্রশাসন আসবে না।

পাশাপাশি এলাকাগুলি সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায় এখানকার মাদক কারবারিদের কৌশলের কোন শেষ নাই।

শহর থেকে দূরে রেললাইনের আশেপাশে জনসমাগম কম থাকার কারণে রেললাইনের আশেপাশে মধ্যে মাদক সংরক্ষণ করে সরবরাহ করছে মাদক সেবনকারীদের মধ্যে। তাছাড়া এখানকার মহিলারাও মাদক কারবারিদের সহযোগিতা করছে অন্যরকম কৌশলে। কিছু নারী বিক্রেতা তাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে কস্টেপ দিয়ে ছোট ছোট পুটলি করে সংরক্ষণ করছে গাঁজা ও ইয়াবাসহ ক্ষতিকারক নেশা দ্রব্য।

বর্তমানে সরকার মাদকের বিরুদ্ধে হার্ডলাইনে থেকে দেশের সমস্ত পুলিশ, র‌্যাব, ডিবি পুলিশদের সর্বক্ষণ নজরদারীতে রাখার নির্দেশ দেওয়া আছে। এই ক্ষেত্রে মাদক কারবারিরা সে যেই হোক তার বিরুদ্ধে সাথে সাথে আইনি ব্যবস্থার মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করতে হবে।

গত এক মাসে সান্তাহার পৌর শহরে অভিযান চালিয়ে প্রায় ১৫ জন মাদক কারবারি ও সেবনকারীকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এরপরও দমছে না মাদকের কারবার। ক্রমশই যেন বেড়েই চলছে বিক্রি। দিন যাচ্ছে মাদক বিক্রয়ের স্থান পরিবর্তন হচ্ছে। হচ্ছে কৌশল পরিবর্তন।

আরও পড়ুন : প্রেমের বিয়ে বিচ্ছেদের পর যুবলীগ নেতার দুধ দিয়ে গোসল

এ বিষয়ে সান্তাহার পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আরিফুল ইসলাম বলেন, আমরা প্রতিদিন অভিযান চালিয়ে মাদক কারবারি এবং সেবনকারীদের গ্রেফতার করছি। এরপরও আরও অনেকে এ কারবারে জড়িত তাদেরকে আটক করার চেষ্টা চলছে। মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

ওডি/এএইচ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড