• রোববার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

একটি ফোন কলেই পৌঁছে যাবে অক্সিজেন

  সেলিম হায়দার, তালা (সাতক্ষীরা)

১৫ জুলাই ২০২১, ১৪:০২
সাতক্ষীরা
অক্সিজেন ব্যাংকের সদস্যরা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

দেশে করোনার সংক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলছে। আর এ সংকটকালে রোগীদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন অক্সিজেনের। কিন্তু অক্সিজেন সিলিন্ডার কেনার সামর্থ্য নেই অনেকেরই। এ অবস্থায় পরিবার যখন অসহায়, তখন একটি ফোন কলেই বেঁচে যেতে পারে করোনায় আক্রান্ত রোগীর জীবন। মুঠোফোনে জানানোর কিছুক্ষণের মধ্যেই বিনা খরচেই রোগীর ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে অক্সিজেন।

আর মানবিকতার এ দৃষ্টান্ত রেখে চলেছেন সাতক্ষীরা তালা উপজেলা খলিলনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও তালা প্রেসক্লাব সভাপতি প্রভাষক প্রণব ঘোষ বাবলু। করোনায় আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীদের জন্য চালু করেছেন খলিল নগর ইউনিয়ন অক্সিজেন ব্যাংক নামের একটি মানবিক প্রতিষ্ঠান।

মোবাইলে আক্রান্ত রোগীর অবস্থা ও অবস্থান জানার পর অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে যাত্রা শুরু করেন অক্সিজেন ব্যাংকের সদস্যরা। লকডাউনের সময় সঙ্কটাপন্ন রোগীকে বাঁচাতে প্রাণপণ চেষ্টা করছেন তারা।

তালা প্রেসক্লাব সভাপতি প্রভাষক প্রণব ঘোষ বাবলু বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সাতক্ষীরায় বেড়েই চলেছে মৃত্যুর হার আর সংক্রমণ। তখনই ইউনিয়ন মানুষের অক্সিজেন সংকটের কথা বিবেচনা করে উপজেলায় সর্বপ্রথম নিজের অর্থায়নে তিনটি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে এগিয়ে আসি। ইউনিয়নের কিছু স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে গঠন করি ‘খলিল নগর ইউনিয়ন অক্সিজেন ব্যাংক’। পরবর্তীতে সাতক্ষীরার সাবেক জেলা প্রশাসক ২টি, দু’জন চিকিৎসক ২টি এবং একজন চাকুরীজীবি ১টি সিলিন্ডার দিয়ে খলিল নগর ইউনিয়ন অক্সিজেন ব্যাংককে সমৃদ্ধ করেন। ৪০ জন শিক্ষিত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্বেচ্ছাসেবকরা খলিল নগরসহ পার্শ্ববর্তী ইউনিয়নে সেবা দিয়ে চলেছেন। এছাড়াও করোনায় উপজেলা ব্যাপী নেতৃত্বদানকারী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘কোভিড-১৯ রেসপন্স টিম’ তালা গঠনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন।

‘খলিল নগর ইউনিয়ন অক্সিজেন ব্যাংকের সদস্য অর্ঘ্য ঘোষ বলেন , দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে প্রতিষ্ঠানের হটলাইন (দীপায়ন ০১৭৫৩২৯৩০০৯, অর্ঘ্য-০১৭০০৬৭৯৭৯৮)।

খলিল নগর গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ বলেন, করোনা মহামারি মোকাবেলায় ও জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও অক্সিজেন পরিসেবা দিয়ে এ জনপদের মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।

খলিলনগরের ইউপি সদস্য বিশ্বজিৎ মণ্ডল বলেন, করোনাকালীন বহু গরীব মানুষকে প্রকাশ্যে ও গোপনে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন প্রণব ঘোষ বাবলু। এছাড়াও তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. অতনু ঘোষ করোনাকালীন প্রনব ঘোষ বাবলুর কাজের প্রশংসা করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারিফ-উল-হাসান বলেন, করোনাকালীন অক্সিজেন সংকটে মানুষের পাশে দাঁড়ানো একটি মহৎ কাজ। প্রণব ঘোষ বাবলুর উদ্যোগে উপজেলার খলিল নগর ইউনিয়নসহ আশপাশে যে কার্যক্রম চলছে সেটির জন্য তাকে সাধুবাদ জানাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, এই সংকটে তালা উপজেলায় সরকারি বেসরকারিভাবে ২০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার মজুত রয়েছে। যেটা প্রয়োজনে ব্যবহার করা হচ্ছে।

ওডি/এফই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet