• শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রূপগঞ্জে বাসষ্ট্যান্ড গুলোতে বাড়ছে মোবাইল চুরি

  সাইদুর রহমান, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)

০৯ জুন ২০২১, ১৭:৩২
রুপগঞ্জ থানা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নারায়ণঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার রূপশী, ভূলতা-গোলাকান্দাইল বাসস্ট্যান্ড গুলোতে নিয়মিত চলছে মোবাইল চুরি, পকেটমার সহ নানা অপকর্ম। প্রতিদিনই কারো না কারো মোবাইল বা টাকা চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে নেশাগ্রস্ত পকেট মাররা। এতে করে চলাচলরত পথচারী ও যাত্রীসাধারনরা রয়েছে চরম আতঙ্কে।

বিশেষ করে গোলাকান্দাইল বাসষ্ট্যান্ডে লেগুনা ও বাসগুলোতে যখনই দেখবে ভীড় ঠিক তখনই সঙ্গবদ্ধ পকেট মারের দল হুমড়ি খেয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে কৌশলে পকেট কেটে টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। গত কয়েকদিন যাবৎ নিয়মিত লেগুনা বাস-মিনিবাস গুলোতে মোবাইল চোরেদের দৌরাত্ম্য মাত্রাতিরিক্ত বেড়েছে। বাসে সামান্য অসর্তকতার সুযোগে চোখের নিমিষেই চোরেরা তুলে নিচ্ছে দামি দামি মোবাইল।

প্রশাসনের যথাযথ নজরদারি না থাকায় ঢাকা সিলেট মহাসড়কের ভূলতা-গোলাকান্দাইল বাসষ্ট্যান্ডে প্রতিদিনই কোনো না কোনো যাত্রীর মোবাইল খোয়াচ্ছেন সংঘবদ্ধ এ চোরের দল। বর্তমানে মোবাইল চোর ও পকেটমারদের স্বর্গরাজ্য বলে পরিচিত হয়ে গিয়েছে ঢাকা সিলেট মহাসড়কের ভূলতা-গোলাকান্দাইল চৌরাস্তা।

পকেটমারদের কবলে পড়া বাসযাত্রী তানভির বলেন, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে তিনি গোলাকান্দাইর থেকে ছনপাড়া যাওয়ার জন্য গোলাকান্দাইল বাসষ্ট্যান্ডে দাড়িয়ে থাকেন। ঝিরি ঝিরি বৃষ্টি থাকায় ভূলতা-গোলাকান্দাইল ষ্ট্যান্ডে যেমন গাড়ি সংকট তেমন লোকজনেরও প্রচুর ভিড়ও ছিল। ষ্ট্যান্ডে বেশ কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকার পর একটি মিনিবাস আসে। পরে বাসে উঠতেই দেখেন প্যান্টের পকেট থেকে তার মোবাইলটি উধাও। বাস থেকে নেমে ষ্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীদের ফোন দিয়ে বার বার কল করলেও কলটি রিসিভ হয় না। পরে এক লেগুনার ড্রাইভার বলেন, এখানে অনেক পকেটমার থাকেন প্রতিদিনই এভাবে যাত্রীদের মোবাইল চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে অনেকের। মোবাইল চুরির বিষয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন মোবাইল চোর চক্রের কবলে পড়া তানভির।

অনুসন্ধানে জানা যায় , ভূলতা-গোলাকান্দাইল বাসষ্ট্যান্ডে একটি সংঘবদ্ধ চোর চক্র প্রতিদিনই মোবাইল চুরি ও টাকা চুরির এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাচ্ছে। এই চোর চক্রে জড়িত প্রভাকরদী এলাকার সালাউদ্দিনের ছেলে কায়েম, পাঁচরুখী এলাকার রহিম, বলাইখাঁ এলাকার আলম, পাঁচাইখাঁ এলাকার শফিক, কাঞ্চন এলাকার মামুন, মাঝিপাড়া এলাকার জয়নালসহ আরও অনেকে। যেখানে মানুষের জটলা সেখানেই তাদেরকে দেখা যায়। তাদের প্রায় সময়ই দেখা যায় বাসষ্ট্যান্ড এলাকাতে ঘুরাঘুরি করতে। ষ্ট্যান্ডে কোন বাস থামলে বাস থেকে যাত্রী নামার উঠার সময় তারা যাত্রীবেসে বেশি হুড়োহুড়ি করে এই অপরাধ কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়। এতে বিপাকে পড়ে যায় সাধারণ যাত্রীরা। আর এই সুযোগকে পুঁজি করে যাত্রীদের মোবাইল পকেট থেকে তুলে নিয়ে সরে পড়েন যাত্রীবেশী চোরেরা।

এছাড়াও ভূলতা-গোলাকান্দাইল শিল্পোন্নত ও জনবহুল এলাকা হওয়ায় এখানে বহিরাগত চোরদেরও বেশ আনাগোনা দেখা যায়। সংঘবদ্ধ মোবাইল চোর চক্রে যারা চুরি বা ছিনতাই করে থাকে তারা মাদকাসক্তির জন্যে বা হাতখরচের টাকার জন্যে মোবাইল বিক্রি করে দেয়।

চাঁন মিয়া নামে এক রিকশা চালক বলেন, চোর চক্রের সদস্যরা আমাদের চোখের সামনে মোবাইল চুরি করলেও তাদের ভয়ে আমরা কিছুই বলতে পারি না। তারা এমনভাবে চুরি করে বুঝার উপায় নেই।

এ বিষয়ে হাইওয়ে পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, বর্তমান যুগে গুরুত্বপূর্ণ জিনিসের মধ্যে মোবাইল একটি। মোবাইল চুরি করা জঘন্য অপরাধ। যদি মোবাইল চুরির সাথে সম্পৃক্ত এমন কাউকে পাওয়া যায় তবে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিব।

এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, আমার কাছে এখনো মোবাইল চুরির কোনো অভিযোগ আসেনি। যদি আসে তবে আইনগত ব্যবস্থা নিব।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড