• বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নওগাঁয় সাব-রেজিস্ট্রারের অফিসে সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ

  সুলতান আহমেদ, মান্দা (নওগাঁ)

০৯ জুন ২০২১, ১১:৪৯
আহত সাংবাদিক (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নওগাঁর মান্দায় জমি রেজিস্ট্রি করতে গিয়ে অতিরিক্ত ফি আদায়ের প্রতিবাদ করায় আব্বাস আলী নামে স্থানীয় এক সাংবাদিকের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (৮ জুন) দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রসাদপুর সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের ভেতরে প্রসাদপুর দলিল লেখক সমিতির সদস্যরা আব্বাস আলী ওপর হামলা চালায় বলে জানা গেছে।

জানা যায়, আব্বাস আলীর বড় ভাই মান্দা উপজেলার ভারশোঁ গ্রামের আসাদ আলী জমি রেজিস্ট্রি করতে প্রসাদপুর দলিল লেখক সমিতিতে আসে। সেখানে অতিরিক্ত ফি আদায়ের প্রতিবাদ এবং জমি রেজিস্ট্রির সরকারি খরচের বিষয়ে জানতে চাওয়ায় দলিল লেখক সমিতির সদস্যদের অতর্কিত হামলার স্বীকার হন ওই সাংবাদিক।

আহত সাংবাদিক আব্বাস আলী জানান, দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবুল আক্তারের কাছে দলিলের সরকারি খরচ জানতে চাইলে তিনি সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের দেওয়ালে টাঙানো কাগজ থেকে দেখে আসতে বলেন। এ সব বিষয় জানতে আমাকে সমিতিতে ভর্তি হতে এবং ক্লাস করতে বলেন। এ সময় সাধারন সম্পাদকের বাম পাশে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক আলামিন রানা আমার ওপর রেগে গিয়ে সমিতি চত্বর থেকে বের করে দেয়। পরে আমি সাব-রেজিস্ট্রারের ফোন নম্বর সংগ্রহ করতে যাই। সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে প্রবেশ করা মাত্র ঘর থেকে বের করে নিয়ে বাবুল আক্তার ও আলামিন রানাসহ ১০-১২জন চারদিক থেকে ঘিরে রেখে অতর্কিত হামরা চালিয়ে মারপিট করে আমার কাছে থাকা ব্যাগ ছিনিয়ে নেন। যার মধ্য জমি রেজিস্ট্রি বাবদ নগদ তিন লক্ষ টাকা, প্যানাসনিক ৪কে ক্যামেরা যার মূল্য এক লক্ষ ত্রিশ হাজার, একটি ল্যাপটপ যার মূল্য পঞ্চাশ হাজার টাকা। পরে স্থানীয় কয়েকজন উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। আমি হামলাকারীর নামে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি।

প্রত্যক্ষদর্শী শরিফুল ইসলাম বলেন, আমিও জমি রেজিস্ট্রি করতে গিয়েছিলাম। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে হঠাৎ করে দলিল লেখক সমিতির ১০-১২ সদস্যরা সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের ভিতরে সাংবাদিক আব্বাসকে মারপিট করতে দেখে উদ্ধার করতে গেলে আমি নিজেও আঘাতপ্রাপ্ত হই।

মান্দা উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার সিরাজুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি যখন ঘটে তখন আমি অফিসে ছিলাম না। বিষয়টি জানার পর আমি উভয় পক্ষকে নিয়ে সমঝোতার চেষ্টা করেছি। তারা কেউ বসতে রাজি হয়নি। তবে আমি বিষয়টি তদন্ত করছি।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান জানান, ঘটনাটি আমি মৌখিকভাবে জানার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি তদন্তের জন্য। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ওডি/এমএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড