• বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বাবার হাতে ছেলে খুন

  সারাদেশ ডেস্ক

০৮ জুন ২০২১, ১২:০৭
বাবার হাতে ছেলে খুন
ছবি : প্রতীকী

মুন্সিগঞ্জ শ্রীনগর উপজেলায় বাবার ছুরিকাঘাতে মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে খুন হয়েছে। সোমবার (৮ জুন) বিকেল ৫টার দিকে শ্রীনগর থানার সামনে এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘাতক বাবাকে আটক করেছে।

শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেদায়াতুল ইসলাম ভূঞা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, শ্রীনগর থানার গেটের পশ্চিম পাশের মেসার্স ফাহাদ স্টোরের মালিক গিয়াস উদ্দিন (৬০) তার ছেলে ইমনকে (২৮) কে ছুরিকাঘাত করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় গিয়াস উদ্দিন ও স্থানীয়রা ইমনকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার বিকেলে ইমন তার বাবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে বায়না ধরে। বাবা গিয়াসউদ্দিন ছেলের বায়না পুরণে রাজি না হওয়ায় ছেলে তাকে মারধর শুরু করে। উপায় না দেখে গিয়াস উদ্দিন দোকানের চায়ের আদা-লেবু কাটার ছোরা দিয়ে ছেলের বুকে আঘাত করে। ইমন মাটিতে লুটিয়ে পরলে তার বাবা ও স্থানীয়রা দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইমনকে মৃত ঘোষণা করে। পুলিশ হাসপাতাল থেকে গিয়াস উদ্দিনকে আটক করে।

গিয়াস উদ্দিনের প্রতিবেশীরা জানায়, নিজের দোকানের পেছনেই তার বাড়ি। গিয়াস উদ্দিনের বাবার নাম মৃত শফিউদ্দিন। ইমন ছোট বেলা থেকেই মানসিক ভারসাম্যহীন। এক ভাই এক বোনের মধ্যে সে ছোট। প্রায় দিনই সে দোকানে আসতো। মতের অমিল হলেই সে বাবা গিয়াস উদ্দিনকে মারধর করত।

মাঝে মাঝে বাড়িতে মায়ের গায়েও হাত তুলতো ইমন। গিয়াস উদ্দিন ছেলের চিকিৎসা করাতে গিয়ে প্রচুর অর্থ ব্যয় করেছেন বলে স্থানীয়রা জানান।

ওসি মো. হেদায়াতুল ইসলাম ভূঞা বলেন, ঘাতক বাবাকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড