• বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নরসিংদীতে দুই কোটি টাকা নিয়ে ব্যবসায়ী উধাও

  মনিরুজ্জামান,নরসিংদী

০৭ জুন ২০২১, ১৬:৪১
নরসিংদী
প্রতীকী ছবি

নরসিংদীতে কাউছার আহমেদ নামের এক ব্যবসায়ী মোটা অংকের লাভের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে প্রায় দুই কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। কাউছার ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট ও মেসার্স শতরূপা ডিপার্টমেন্ট স্টোরের স্বত্বাধিকারী।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ লিমিটেড এর সক্রিয় সদস্য হিসেবে ইতোপূর্বে নাশকতার মামলায় জেল খেটেছে কাউসার। জেলখাটার সুবাদে এবং তার শ্বশুরবাড়ির আত্মীয় ইসলামী ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তার সহযোগিতায় ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট শাখার অনুমোদন পায় সে। অল্প সময়ে ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট শাখায় মূল ব্যাংকের মতোই সেবা দিয়ে সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জন করে এবং তার এই এজেন্ট শাখা ঢাকা বিভাগের দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে।

ভুক্তভোগীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে কলেজগেটে ব্যবসা করার সুবাদে অনেকের সাথে কাউসারের সুসম্পর্ক গড়ে উঠে। তার বন্ধুবান্ধব ও পরিচিত যারা ওই ব্যাংকে টাকা রাখতে আসত তাদেরকে বিভিন্নভাবে প্রলোভন দেখিয়ে ইসলামী শরিয়াভিত্তিক ব্যবসার কথা বলে তাদের একাউন্টের টাকা নিজের কাছে রেখে দিত। তাদের সঞ্চিত টাকা লভ্যাংশসহ যেকোনো সময় প্রয়োজনে নিয়ে যেতে পারবে এই মর্মে টাকার প্রমাণস্বরূপ স্ট্যাম্প ও চেক প্রদান করা হত।

এভাবেই আস্তে আস্তে মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে প্রায় দুই কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে গত ২৫ মার্চ রাতে উধাও হয়ে যায় কাউসার। তার খপ্পরে পড়ে নিঃস্ব হয়ে জীবন-যাপন করছেন অনেক পরিবার।

ভুক্তভোগীরা আরও জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে নরসিংদী কোর্টে তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হয়েছে। অন্যদিকে কাউছারের কাছ থেকে উপজেলার ঘরবাড়ি এলাকার আফাজুদ্দিনের ছেলে সজিব ৭৩ লক্ষ টাকার সম্পদ এবং সুপার শপ লিখে নেওয়ার পর সেও উধাও হয়েছে।

এ বিষয়ে কাউসারের স্ত্রী মনিরা বেগম জানান, আমার স্বামীর ঋণ পরিশোধ করার জন্য মনোহরদী থেকে জমি, শিবপুর বানিয়াদির ফ্ল্যাট ও কলেজ গেইটের সুপার শপসহ মোট ৭৩ লক্ষ টাকার সম্পদ লিখে নিয়েছে সজিব। পরে কাউকে কোনো টাকাপয়সা না দিয়ে সজীবও পালিয়ে যায়। বর্তমানে আমার স্বামীর সাথে আমার কোনো যোগাযোগ নেই।

স্বামীর নিখোঁজ হওয়ার দীর্ঘদিন পার হলেও সাধারণ ডায়েরি না করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা থানায় গিয়েছিলাম। কিন্তু থানায় ডায়েরি নেয়নি।

এ বিষয়ে শিবপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সালাউদ্দিন মিয়া বলেন, প্রতারণার বিষয়ে কোর্টে মামলা হলে তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ওডি/এসএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড