• মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রক্ত দিয়ে প্রসূতি মাকে বাঁচালেন পুলিশ সদস্য

  ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি

০১ মে ২০২১, ২০:২০
পুলিশ সদস্য আতিকুল ইসলাম
পুলিশ সদস্য আতিকুল ইসলাম (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নবজাতক কন্যা শিশুর জন্ম দিয়ে ক্লিনিকের শয্যায় রক্ত শূন্যতায় কাতরাচ্ছিলেন রুনা খাতুন নামে এক প্রসূতি মা। ডাক্তার বলছিলেন রক্ত না পেলে বাঁচানো সম্ভব নয়। প্রিয়জনকে বাঁচাতে দিশেহারা হয়ে ছোটাছুটি করছিলেন স্বজনরা। কোথাও রক্তের সন্ধ্যান পাচ্ছিলেন না তারা। সে সময় টহলরত পুলিশ সদস্যের একটি দল জানতে পারেন (ও নেগেটিভ) রক্তের অভাবে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে লড়াই করছেন সদ্য জন্ম দেয়া এক শিশুর মা।

তখনই রক্ত দিতে এগিয়ে আসেন পুলিশ সদস্য আতিকুল ইসলাম। জরুরি মুহুর্তে পুলিশ সদস্যের রক্ত দেয়ায় অশ্রুসিক্ত হন উপস্থিত অনেকে। সাধুবাদ জানান হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসকরা।

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার শোভন ক্লিনিকে গুরুতর অসুস্থ ওই মাকে রক্ত দেন পুলিশ সদস্য আতিকুল। তিনি রূপপুর পারমাণবিক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই)।

রুনা খাতুনের বাবা সোহরাব আলী জানান, শনিবার (১ মে) সকালে শোভন ক্লিনিকে তার মেয়েকে সিজার করা হয়। পরে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে পুলিশ সদস্য আতিকুল ইসলাম তার মেয়েকে রক্ত দেন।

শোভন ক্লিনিকের চিকিৎসকের বরাত দিয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম শামিম জানান, সকালে রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল। প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। সে মূহুর্তে রক্ত না দিলে তাকে বাঁচানো যেত ন।

পুলিশ সদস্য আতিকুল ইসলাম জানান, একজন বয়স্ক লোক রক্তের সন্ধান করছিলেন। তার কথা শোনে একজন মানুষ হিসেবে ওই মাকে রক্ত দেই। আল্লাহ এখন মা ও শিশুকে (কন্যা) সুস্থ রেখেছেন। আমি এতেই খুশি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড