• বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মামলা ও খবর প্রকাশের প্রতিবাদে গাইবান্ধায় সংবাদ সম্মেলন

  রফিক, গাইবান্ধা

২৯ এপ্রিল ২০২১, ১৩:১৪
লিখিত বক্তব্য পাঠ করা হচ্ছে (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চলতি মৌসুমে বোরো (ইরি) ধান কাটা নিয়ে থানায় মিথ্যা মামলা ও খবর প্রকাশের প্রতিবাদে গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী এক পরিবার। মামলার পর এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

প্রতিপক্ষ প্রভাবশালী হওয়ায় নিরুপায় হয়ে বুধবার (২৮ এপ্রিল) বিকালে উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের ভেগীপাড়া গ্রামে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন নুরুল ইসলামের স্ত্রী আম্বিয়া বেগম। এ সময় তার উপস্থিতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মো. সাকোয়াতজ্জামান।

লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন, দীর্ঘদিন থেকে নুরুল ইসলামে সাথে একই গ্রামের বেবী বেগমের আটাষ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসতেছিল। যার (খতিয়ান নং-১৭৫, দাগ নং-২৩০৩)। গত রবিবার (২৫ এপ্রিল) বিরোধপূর্ণ জমিতে ধান কাটা নিয়ে পরস্পরের কথা কাটাকাটি হয়। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়রা গ্রাম শালিসে সমাধানের চেষ্টা করলে প্রতিবারেই তা পণ্ড হয়ে যায়।

পরবর্তীতে বেবী বেগম থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ উভয় পক্ষের সম্মতিক্রমে বৈঠক করেন। বৈঠকের সিদ্ধান্ত হয়, ওই জমি থেকে ধান কাটা-মাড়াই শেষে নুরুল ইসলাম বেবী বেগমকে ৫ মন ধান এবং ২শ টি খড়ের আটি প্রদান করবেন। এমন সিদ্ধান্তের পরই নুরুল ইসলাম ঘটনার দিন স্থানীয় কামলার মাধ্যমে ধান কাটেন। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বিরোধপূর্ণ ঘটনাটি মীমাংসিত হয়।

তবে, কোন এক অদৃশ্য ষড়যন্ত্রের কারণে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তির প্ররোচনায় গত মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) বৈঠকের সিদ্ধান্ত ভঙ্গ করে থানায় মামলা দায়ের করে করেন বেবী বেগম। এ মামলায় শুধু নুরুল ইসলাম, ষড়যন্ত্র মূলক ভেগীপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমান ও তার ছেলে জেনারুল ইসলাম ঠান্ডাসহ তাদের একই পরিবারের পাঁচ জন সদস্যকে মামলার আসামি করা হয়।

এদিকে জেনারুল ইসলাম ঠান্ডা জানান, বিরোধপূর্ণ ওই জমির মালিকানা, ভোগদখল এবং ধানকাটা ঘটনার সাথে আমার ও আমার পরিবারের কোন সম্পৃক্ততা নেই। আমিসহ আমার পরিবারকে সামাজিক ভাবে হেয় ও হয়রানি করার জন্য এ মামলা।

তিনি আরও জানান, প্রতিপক্ষ আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক ভিত্তিহীন-বানোয়াট ও অসত্য তথ্য তুলে ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার করে আসছে। আমি এসবের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সেই সাথে দায়েরকৃত মামলাটি সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত তথ্য উদঘাটন করে বিষয়টি শান্তিপূর্ণ সুরহায় পুলিশ প্রশাসনের পদক্ষেপ কামনা করছি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড