• মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সন্তানদের জীবন নিয়ে উদ্বিগ্ন মায়ের সংবাদ সম্মেলন

  হারুন আনসারী, ফরিদপুর

২৮ এপ্রিল ২০২১, ১৫:২৩
ইসমত আরা ও তার তিন সন্তান
ইসমত আরা ও তার তিন সন্তান। (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ফরিদপুরের সালথা উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের মুরাটিয়া গ্রামের ইসমত আরা (৩৭) একজন প্রবাসী নারী শ্রমিক। দীর্ঘ ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি জর্ডান ও সৌদি আরবে কাজ করেন।

বিদেশে টাকা রোজগার করে আড়াই লাখ টাকা দিয়ে স্বামীকেও নিয়ে যান ওমানে। আর তার তিন সন্তান সুমন (১৮), রুমন (১৫) ও শোয়ায়েব (১২) থাকেন দাদা বাড়িতে। তাদের খরচের জন্য প্রতি মাসে টাকা দিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

এছাড়া জমি কেনার জন্য স্বামীর বাড়িতে টাকাও পাঠান ইসমত আরা। কিন্তু প্রতারক স্বামী ফিরোজ খান এসবই আত্মসাৎ করে আরও দুটি বিয়ে করেছেন বলে অভিযোগ ওই নারীর।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে মুরাটিয়া গ্রামে বাবার বাড়িতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ইসমত আরা এসব অভিযোগ করেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, একাধিকবার সালিশে সমাধান না পেয়ে গত ৪ এপ্রিল তিনি ভরণপোষণের দাবিতে পারিবারিক আদালতে মামলা করেন। ওই মামলায় তার কলেজ পড়ুয়া বড় ছেলে সুমন খানের কথা শুনে বিচারক তার স্বামীকে জেলহাজতে পাঠায়। ১৫ দিন জেল খেটে বেরিয়ে এখন তার বড় ছেলেকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে তার বাবা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত তার ৯ বছর বয়সী মাদরাসা পড়ুয়া ছেলে শোয়ায়েব জানায়, গত ৭ জানুয়ারি দেশে এলেও তাকে দেখতে আসেনি তার বাবা। এমনকি এই নয় বছরেও সে একবারের জন্যও বাবার মুখ দেখেনি।

ইসমত আরা জানান, তার পিতা একজন দরিদ্র কৃষক ছিলেন। ভাইদের আর্থিক অবস্থাও ভালো না। তার স্বামীর কারণে সন্তানদের নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এখন সে সন্তানদের ভরণপোষণ দিচ্ছে না। তিনি এর উপযুক্ত বিচার ও সন্তানদের ভরণপোষণ চান।

এ ব্যাপারে ফিরোজ খানের কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়ে আরও দুটি বিয়ে করার কথা স্বীকার করে বলেন, গত চার বছর যাবত ছেলেদের খরচের জন্য টাকা দিয়েছি। যার প্রমাণও রয়েছে। ছেলেকে হত্যার হুমকির অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি। তার দাবি, প্রথম স্ত্রী ইমসত আরা বিদেশে যাওয়ার কিছুদিন পর তাকে ফোন করলে অপমান করতো। এজন্য পরে আরও দুটি বিয়ে করেন।

ওডি/জেআই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড