• মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

লামায় পাহাড় ও ফসলি জমির মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

  মো. নুরুল করিম আরমান, লামা, বান্দরবান

২৮ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩৩
পাহাড় কেটে মাটি নিয়ে যাওয়া হচ্ছে (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বন ও পরিবেশ আইনকে তোয়াক্কা না করে বান্দরবান জেলার আলীকদম উপজেলার ফসলি জমি ও পাহাড়ের মাটি দিনের পর দিন কেটে নিচ্ছে ইটভাটার মালিকরা। অবৈধভাবে এসব ফসলি জমি ও পাহাড় কেটে মাটি নিয়ে গেলেও নেয়া হচ্ছে না কোনো আইনি ব্যবস্থা।

ইটভাটাগুলোর কারণে বিলুপ্ত হচ্ছে সবুজ পাহাড় ও ফসলি জমি। উপজেলার তারাবনিয়া এলাকার এবিএম, আমতলী এলাকায় ইউবিএম ও আলীবাজার এলাকাস্থ এফবিএম নামের তিন ইটভাটার মালিকরা আশপাশের ৩-৪ কিলোমিটার এলাকায় নির্বিচারে পাহাড় ও ফসলি জমি কাটছেন। ইটভাটার মালিকরা মাটি নিয়ে যাওয়ার কারণে এক সময়ের ফসলি জমিগুলো বর্তমানে ডোবায় পরিণত হয়েছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, এস্কেভেটর দিয়ে মাটি কেটে সেই মাটি (ডাম্পার) ছোট ট্রাক দিয়ে ইটভাটায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নাম প্রকাশে অনীহা প্রকাশ করে এক ডাম্পার চালক বলেন, এবিএমের ম্যানেজার আব্দুল কাদেরের নির্দেশে মাটি কাটা হচ্ছে এবং এ মাটিগুলো ইটভাটায় জমানো হচ্ছে।

এদিকে স্থানীয় গিয়াস উদ্দিন ও গফুর আহম্মেদ বলেন, দিনে সীমিত আকারে হলেও রাতে মাটি কাটা ও মাটি পরিবহন বেপরোয়া হয়ে উঠে। ইট ও মাটির গাড়ি চলাচলের ফলে সড়কগুলো ভেঙে একাকার হয়ে এ সড়ক দিয়ে হেঁটে যাওয়াও অসাধ্য হয়ে পড়েছে।

মাটি কাটার বিষয়ে এবিএমের ম্যনেজার আব্দুল কাদের বলেন, জমির মালিক মাটি বিক্রি করেছে, আমরা কিনেছি। তবে মালিকানা জমির মাটি কাটতে প্রশাসনের অনুমতি লাগে কিনা তা আমার জানা নেই।

এ বিষয়ে বান্দরবান জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শ্রীরূপ মজুমদার সাংবাদিকদের জানায়, লকডাউন শেষে আলীকদমের ইটভাটাগুলোতে পর্যায়ক্রমে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

এদিকে আলীকদম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সায়েদ ইকবাল বলেন, পাহাড় ও ফসলি জমি নষ্ট করে মাটি আনার অভিযোগ পেলে তাৎক্ষণিক ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা ও মাটি কাটা বন্ধ করা হচ্ছে। অবৈধভাবে পাহাড়কাটার বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে, সবার একান্তিক সহযোগিতায় পাহাড় ও ফসলি জমি কাটা বন্ধ করা সহজ হবে বলেও জানান তিনি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড