• বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আড়াই বছর পর হত্যার রহস্য উন্মোচন, ঘাতকরা গ্রেপ্তার

  মনিরুজ্জামান, নরসিংদী

০৯ এপ্রিল ২০২১, ১০:২৬
ইজিবাইক চালককে হত্যার রহস্য উৎঘাটন
ইজিবাইক চালককে হত্যার রহস্য উৎঘাটন। (ছবি: সংগৃহীত)

সাদেক মিয়া নামে এক ইজিবাইক চালককে হত্যা করে ইজিবাইক ছিনতাইয়ের আড়াই বছর পর হত্যা রহস্য উৎঘাটন সহ ঘাতকদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) নরসিংদী।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) পিবিআই নরসিংদী কার্লয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

নিহত মো. সাদেক মিয়া নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার তাড়াইল গ্রামের মো. শহিদ উদ্দিনের ছেলে।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে মো. ওমর সানি, বিল্লাল হোসেন ও মো. সাখাওয়াত হোসেন ওরফে সাকারুলকে গ্রেপ্তার করে পিবিআই নরসিংদী। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০১৮ সালের ৯ অক্টোবর রাত ৯ টার দিকে মো. সাদেক মিয়া তার ইজিবাইকে দুজন যুবককে নিয়ে রুপগঞ্জের কাঞ্চন বাজার থেকে কাজৈর এলাকার দিকে রওনা হয়। এরপর সাদেক আর বাড়ি ফেরেনি। পরবর্তীতে তার স্বজনরা মাইকিং ও সাদেকের ছবি সম্বলিত লিফলেট বিতরণ করে। অবশেষে নিখোঁজের তিন দিন পর পলাশ উপজেলার কাজৈর গ্রামের সুমন মিয়ার পুকুর থেকে সাদেকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এসময় মরদেহের গলায় গামছা বাধা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্রের জখমের চিহ্ন পাওয়া যায়। নিহতের ঘটনায় সাদেক মিয়ার বড় ভাই বাদী হয়ে ১২ অক্টোবর পলাশ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৯।

এতে আরও বলা হয়, মামলা দায়েরের পর দীর্ঘ তিন মাস পলাশ থানা পুলিশ তদন্ত করেও কোন অগ্রগতি না হওয়ায় পুলিশ হেড কোয়াটারের নির্দেশে ২০১৯ সালের ১৮ জুলাই পিবিআই নরসিংদী মামলাটি তদন্ত কাজ শুরু করেন। পিবিআই পুলিশ সুপার মো. এনায়েত হোসেন মান্নান এর নির্দেশনায় এস আই জামাল উদ্দিন দীর্ঘ তদন্ত শেষে সাদেক হত্যাকাণ্ড ও অটোরিকশা ছিনতাইয়ের রহস্য উৎঘাটন করেন।

ঘটনার সাথে জড়িত অটোরিকশা ছিনতাইকারী মো. ওমর সানি (২৫) কে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রূপগঞ্জের তারাব বিশ্বরোড এলাকা থেকে ছিনতাইকৃত অটোরিকশার ক্রেতা বিল্লাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পিবিআই। পরবর্তীতে আরেকটি অভিযানে অপর আসামী বাবলু মিয়া (৩০) কে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া ওমর সানির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে দীর্ঘ দিন যাবত পলাতক থাকা ছিনতাইকারী চক্রের মূল হোতা মো. সাখাওয়াত হোসেন ওরফে সাকারুলকে পলাশ উপজেলার কাজৈর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এছাড়াও এ হত্যার সাথে পলাশ উপজেলার কাজৈর গ্রামের মো. নাদির মিয়া নামে এক যুবক জড়িত ছিল বলে জানায় তারা। ঘটনার পর মো. নাদির মিয়া সৌদি আরবে পাড়ি জমায়। হত্যার সাথে জড়িতরা দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকায় ছিনতাই, দস্যুতা, হত্যাসহ অটোরিকশা/গাড়ী ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত চক্রের সদস্য হিসেবে কাজ করে আসছে। গেপ্তারকৃত তিন আসামী হত্যার সাথে জড়িত বলে আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

ওডি/জেআই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড