• বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

এক বছরে স্থাপিত হয়নি অক্সিজেন প্লান্ট, বিঘ্নিত হচ্ছে করোনার চিকিৎসা

  এম.ডি অসীম,বিভাগীয় প্রধান, খুলনা

০৬ এপ্রিল ২০২১, ১২:০১
অবহেলায় পড়ে রয়েছে অক্সিজেন প্লান্ট (ছবি : দৈনিক অধিকার)

করোনার ঢেউয়ে সারাদেশের মতো খুলনাও আশংকাজনক হারে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এ অবস্থায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সারাদেশে সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে সাতদিনের লকডাউন শুরু হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে করোনা রোগীদের অক্সিজেন সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে খুলনায়।

সংক্রমণের এক বছরেরও বেশি সময় অতিবাহিত হলেও হাসপাতালটিতে এখনও স্থাপন করা সম্ভব হয়নি অক্সিজেন প্লান্ট। নির্ধারিত অক্সিজেন প্লান্টটি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অদূরে অবহেলায় পড়ে রয়েছে। এ নিয়ে খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের চিকিৎসকরা পড়েছেন চরম বিপাকে। আর দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সাধারণ রোগীদের।

খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ও করোনা প্রতিরোধ ও চিকিৎসা কমিটির খুলনার সমন্বয়কারী ডা. মেহেদী নেওয়াজ বলেন, করোনা হাসপাতালে অক্সিজেন সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে, যা ধীরে ধীরে আরও প্রকট হচ্ছে। যাদের অক্সিজেন প্লান্টটির দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল, তারা এটি কোন ভাবেই পালন করেনি।

তিনি আরও বলেন, শুধুমাত্র কয়েকটি দপ্তরের সমন্বয়হীনতার ও অবহেলার কারণে এই প্লান্টটি স্থাপন হয়নি এবং নির্ধারিত প্লান্টটি চরম অবহেলায় রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর গড়িমসি ও অবহেলার কারণে স্থাপন হচ্ছে না প্লান্টটি। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন চিকিৎসক নেতারাও। হাসপাতালে বর্তমানে লিকুইড (তরল) অক্সিজেন প্লান্ট থেকে ৩৬ জনকে সেবা দেয়ার কথা থাকলেও সক্ষমতা নিয়ে আছে প্রশ্ন। অথচ এই সক্ষমতা দ্বিগুণ করতে মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব দেয়া হয় গত নয় মাস পূর্বে। আইসিইউতে ভেন্টিলেটরের সংখ্যা ১০ টি হলেও সচল মাত্র ৪ টি রয়েছে। বাকি ৬ টি ভেন্টিলেটর ও ১৪ টি হাই ফ্লু নজেল অচল রয়েছে। যা কবে নাগাদ সচল হতে পারে তা জানা নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

অপর্যাপ্ত রয়েছে ভেন্টিলেটর ব্যবস্থা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত মার্চ মাসে পূর্বের তুলনায় সংক্রমণের হার বেড়েছে ১৪ শতাংশ। গত ২৪ মার্চ থেকে সোমবার পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে ১০ জন। এছাড়া আইসিইউতে শয্যা সংখ্যা রয়েছে ১০টি, যা প্রয়োজনের তুলনায় অপর্যাপ্ত। প্রতিদিন আনুপাতিক হারে রোগীর সংখ্যা বাড়লেও বাড়ছে না শয্যা সংখ্যা। এ নিয়ে বিপাকে চিকিৎসকরা। ফলে করোনা রোগীর চিকিৎসায় ভোগান্তি বাড়ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন চিকিৎসক জানান, ভর্তি রোগীদের অধিকাংশেরই অক্সিজেন প্রয়োজন হয়। কিন্তু এত রোগীকে একসঙ্গে সিলিন্ডারে অক্সিজেন দেওয়া সম্ভব হয় না। লিকুইড (তরল) অক্সিজেন প্লান্ট না থাকায় নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেন সরবরাহে জটিলতা তৈরি হচ্ছে। এতে ঝুঁকিতে পড়ছেন করোনায় আক্রান্ত রোগীরা।

তবে খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন দৈনিক অধিকারকে বলেন, খুলনায় করোনা রোগীদের জন্য পর্যাপ্ত আইসিইউ শয্যা সংখ্যা রয়েছে। ইতিমধ্যেই সব উপজেলায় আইসিইউ শয্যা করা হচ্ছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড