• মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ঘুমন্ত শিশুকে কুপিয়ে হত্যা করল মা

  এম. ডি অসীম, বিভাগীয় প্রধান (খুলনা)

০৬ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৫১
ঘুমন্ত শিশুকে কুপিয়ে হত্যা করল মা
হত্যাকারি তিথি আক্তার ও নিহত তানিশা আক্তার (ছবি : সংগৃহীত)

খুলনার তেরখাদায় ঘুমন্ত শিশু তানিশা আক্তারকে (৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে তার সৎ মা তিথি আক্তার মুক্তা (২২)।

সোমবার (০৫ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে উপজেলার আড়কান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু তানিশা ওই গ্রামের খাজা শেখের মেয়ে। খাজা শেখ পেশায় একজন পুলিশ কনেস্টবল।

স্থানীয়রা জানান, তেরখাদা উপজেলার আড়কান্দি গ্রামের খাজা শেখ বিগত সাড়ে ৭ বছর আগে তাসলিমা বেগমকে বিয়ে করেন। বছর দেড়েক আগে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে একমাত্র সন্তান ছিল তানিশা আক্তার। মা-বাবার বিচ্ছেদের পর তানিশা আক্তার মায়ের সাথে নানা বাড়িতে ছিলেন। কিছুদিন আগে তানিশা বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন।

এদিকে খাজা শেখ নতুন করে তিথি আক্তার মুক্তা নামের আরেক নারীকে বিয়ে করেন। জানা যায়, খাজা শেখের নতুন স্ত্রী মুক্তা তার সৎ সন্তানকে মেনে নিতে পারছিলেন না। শিশু তানিশা বাবার বাড়িতে আসলে বিভিন্ন সময়ে অমানবিক নির্যাতন করতেন। রাতে শিশু তানিশা আক্তার তার দাদির কাছে ঘুমিয়ে ছিল। সেখান থেকে তাকে তুলে নিয়ে যান সৎ মা তিথি আক্তার মুক্তা। পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন।

এসময়ে শিশুটির চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। সেখান থেকে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসকরা শিশু তানিশা আক্তারকে মৃত ঘোষণা করেন।

তেরখাদা থানার তদন্ত পরিদর্শক মো. মোশারফ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, 'শিশু তানিশাকে হত্যার অভিযোগে তার সৎ মাকে আটক করা হয়েছে। কি কারণে শিশুটিকে হত্যা করছে তা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত বলা যাবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড