• মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মাগুরায় পেঁয়াজের বাম্পার ফলন, কৃষকের মুখে হাসির ঝিলিক

  হেলাল হোসেন, মাগুরা

০৩ এপ্রিল ২০২১, ২০:০৪
ছবি : দৈনিক অধিকার

মাগুরার চার উপজেলায় চলতি বছর পেঁয়াজের বাম্পার ফলন হয়েছে। জেলার চার উপজেলার শ্রীপুরে সবচেয়ে বেশি পেঁয়াজের আবাদ হয়েছে। পেঁয়াজের বাম্পার ফলনে জেলার কৃষকদের মুখে ফুটেছে হাসির ঝিলিক। কৃষি বিভাগ বলছে, এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় জেলার কৃষকরা পেঁয়াজ চাষে বেশি লাভবান হবে।

চলতি বছর জেলায় মোট পেঁয়াজের আবাদ হয়েছে ১০ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে। তার মধ্যে সদরে ১ হাজার ১৯০ হেক্টর, শ্রীপুরে ৬ হাজার ৩৫০ হেক্টর, শালিখায় ১ হাজার ১৪০ হেক্টর ও মহম্মদপুরে ১ হাজার ৮২০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ আবাদ হয়েছে। এ বছর প্রতি হেক্টর জমিতে উৎপাদন হয়েছে ১৪ মেট্রিক টন। এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিলো ১.৪৭ মেট্রিক টন। জেলায় এবার বারী ১, ৪,তাহেরপুরী, লালতীর, সুপার ও কিং জাতের পেঁয়াজ চাষ করেছেন কৃষকরা।

শ্রীপুর উপজেলার সব্দালপুর ইউনিয়নের মর্কদ্দখোলা গ্রামের পেঁয়াজ চাষী হামিদুল ইসলাম জানান, এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকার কারণে জমিতে পেঁয়াজ ফলন ভালো হয়েছে। আমি এবার ২ বিঘা জমিতে লালতীর জাতের পেঁয়াজের আবাদ করেছি। পৌষ মাসের মাঝামাঝিতে জমিতে বীজ বপন করেছি। বীজ বপন করার পাশাপশি সার ও সেচ দিয়েছি। পেঁয়াজের চারা বের হলে জমিতে বাড়তি যত্ন নিয়েছি। সময়মত সেচ ও সার দেওয়ার ফলে আমার পেঁয়াজ ভালো হয়েছে। চলতি চৈত্র মাসের পেঁয়াজ জমি থেকে তুলতে শুরু করেছি। এবার বিঘায় ৮০-৯০ মণ পেঁয়াজ পাবো বলে মনে করছি। বীজ, সারসহ অন্যান্য খরচ দিয়ে আমার ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এখন প্রতি মণ পেঁয়াজ ৯৫০ টাকা থেকে ১ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এবার পেঁয়াজের বাম্পার ফলনে তিনি ১ থেকে দেড় লক্ষ টাকা আয় করবেন বলে জানান।

তিনি আক্ষেপ করে বলেন, কৃৃষি বিভাগের কোনো সুপার আমাদের এলাকায় আসে না। তারা কোনো কাজে সহযোগিতা করে না।

উপজেলার জয়নগর গ্রামের সুনিল কুমার বিশ্বাস জানান, আমি এবার সুপার জাতের পেঁয়াজ চাষ করেছি। এ চাষে পেয়েছি ভালো ফলন। এ জাতের পেঁয়াজের রং, আকার ও গঠন খুবই ভালো। এটি দেশি জাতের পেঁয়াজের মতো। আশা করছি ভালো অর্থ পাবো।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সুশান্ত কুমার প্রামাণিক জানান, এবার আবহাওয়া ও পরিবেশ অনুকূলে থাকার কারণে জেলায় পেঁয়াজের বাম্পার ফলন হয়েছে। কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না থাকার কারণে পেঁয়াজ চাষিদের কোনো ক্ষতি হয়নি। পেঁয়াজ চাষে উদ্বুদ্ধ করতে বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণ করা হয়েছে। আগামীতে এ চাষের জন্য জেলার কৃষকদের আরও উদ্বুদ্ধ করা হবে।

ওডি/এআই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড