• বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ছেলের ছুরিকাঘাতে পিতার মৃত্যু, আহত মা

  তানভীর আহমেদ হীরা, জামালপুর

০২ এপ্রিল ২০২১, ২১:১৬
ছবি : প্রতীকী

জামালপুরের মেলান্দহে পুত্রের ছুরিকাঘাতে আহত পিতা ওয়াহাব আলী (৫৫) মেরে গেছেন। বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) হাসপাতলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে, বুধবার (৩১ মার্চ) ওয়াহাব আলীর প্রথম স্ত্রী নইলে বেগম (৫০) ও ছেলে রিপন (২৬)’র সাথে কলহ হয়। তর্ক-বিতর্কের একপর্যায়ে ছেলে রিপন তার মা নইলে বেগমকে মারপিট করে হাতের কব্জি ভেঙে দেয়। মাতা নইলে বেগমকে মারধরের খবর পেয়ে পরদিন পিতা ওয়াহাব আলী ঢাকা থেকে দ্বিতীয় স্ত্রী গোলাপীকে (৪৫)কে রেখে বাড়িতে আসেন।

দ্বিতীয় দফা তর্ক-বিতর্ক হল ওয়াহাবের ভাতিজা ফিরলে মিয়া বাবলু (৫০) ও জামাতা শহিদুল ইসলাম (৩৫) ক্ষিপ্ত হয়ে ওয়াহাব আলীর মাথায় আঘাত করে। এ সময় পুত্র রিপন (২৬) ওয়াহাব আলীর পেটে ছুরি মেরে রক্তাক্ত জখম করে। প্রতিবেশিরা মুমূর্ষু অবস্থায় ওয়াহাব আলীকে প্রথমে জামালপুর পরে ময়মনসিংহ হাসপাতালে ভর্তি করে।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার ওয়াহাব আলী মারা যান। এ ঘটনার পর থেকেই ওয়াহাব আলীর বড় মেয়ে রিনা পারভীন ছাড়া বাকি স্বজনরা ঢাকা গা ঢাকা দিয়েছে।

ওয়াহাব আলীর দ্বিতীয় স্ত্রী গোলাপী বেগম (৪৫) জানান, পরিকল্পিতভাবে বাড়িতে ডেকে এনে আমার স্বামী ওয়াহাব আলীকে হত্যা করা হয়েছে।

ওদিকে গ্রাম্য মাতাব্বরগণ ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জান গেছে।

মেলান্দহ থানার অফিসার ইনচার্জ মায়নুল ইসলাম জানান, এখনো এ বিষয়ে কেউ থানায় মামলা দায়ের করেননি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড