• বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

৪৮ ঘণ্টা পরও উদ্ধার হয়নি ডুবে যাওয়া কার্গো

  এম,ডি অসীম, বিভাগীয় প্রধান, খুলনা

০১ এপ্রিল ২০২১, ১৯:১৯
৪৮ ঘণ্টা পরও উদ্ধার হয়নি ডুবে যাওয়া কার্গো
ডুবে যাওয়া কার্গো (ছবি : দৈনিক অধিকার)

খুলনার মোংলা বন্দরের পশুর নদীতে ডুবে যাওয়া কয়লা বোঝাই লাইটার জাহাজটির ৪৮ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও এখনও উদ্ধার কাজ শুরু করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাহাজ মালিক পক্ষ ও কয়লা পরিবহন ঠিকাদার যৌথভাবে উদ্ধার কাজ শুরু করার জন্য জাহাজটি ডুবন্ত স্থানে মার্কিন বয়া চিহ্নিত করে রেখেছে। নদীতে জোয়ারের ভড়াগোনের স্রোতের কারণে উদ্ধার কাজ শুরু করতে পারেনি তারা। তবে জাহাজটি উদ্ধার করার জন্য সকল প্রস্তুতি নিয়েছে এবং আগামী ৩ এপ্রিল সকাল থেকে উদ্ধার কাজ শুরু হবে বলে জানান লাইটার মালিক মো. বাদল।

প্রথমে ডুবুরি দিয়ে জাহাজটির অবস্থান শনাক্ত করে নদীর জোয়ার-ভাটার উপর নির্ভর করেই মেশিন মাধ্যমে ডুবন্ত জাহাজে থাকা কয়লা অপসারণ ও পরবর্তীতে লাইটার জাহাজটি উত্তোলন করা হবে।

লাইটার জাহাজটি উদ্ধার তৎপরতায় অন্তত ১০ থেকে ১২ দিন সময় লাগতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। এ দিকে দুর্ঘটনার বিষয় মঙ্গলবার রাতে মোংলা থানায় পৃথক দুটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন লাইটার জাহাজের মাষ্টার ও কয়লা আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান।

সোমবার বন্দর চ্যানেলের হাড়বাড়িয়ায় অবস্থানরত একটি বিদেশী মাদার ভ্যাসেল (বিদেশী বাণিজ্যিক জাহাজ) থেকে ৭শ’ মেট্রিক টন কয়লা বোঝাই করে যশোর নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় লাইটার জাহাজ এমভি ইফসিহা মাহীন। পরবর্তীতে মোংলা পশুর নদীর মোহনায় ক্রীক বয়ায় যাত্রা বিরতির এক পর্যায় নদীর স্রোতের টানে অপর একটি লাইটারের উপর আছড়ে পড়ে কয়লা বোঝাই এ জাহাজটির তলা ফেটে যায়। এ সময় মাষ্টার দ্রুত চালিয়ে মুল চ্যানেলের বাহিরে পৌছাতেই মুহুর্তের মধ্যে ডুবে যায় লাইটার জাহাজটি।

মোংলা লাইটার শ্রমিক ইউনিয়ন সহ সভাপতি মো. মাইনুল হোসেন মিন্টু বলেন, বন্দর কর্তৃপক্ষ চ্যানেল থেকে ডুবন্ত লাইটারটিকে দ্রুত উদ্ধার করে চ্যানেল ঝুঁকি মুক্ত রাখার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এ ব্যাপারে মালিক পক্ষ ও কয়লা আমদানিকারকদের সাথেও যোগাযোগ করা হয়েছে। অতিদ্রুত ডুবন্ত এ লাইটারটিকে উদ্ধার করা হবে বলে জানায় লাইটার শ্রমিক ইউনিয়নের এ নেতা।

ডুবন্ত লাইটার জাহাজের মালিক মো. বাদল জানান, ইতিমধ্যে বরিশালের স্বরূপকাঠি মেসার্স হোসেন ট্রেডার্স নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে লাইটার জাহাজ উদ্ধারের জন্য চুক্তিপত্র সম্পন্ন করা হয়েছে। প্রথমে ডুবুরী দল দিয়ে জাহাজ সার্ভে করা হবে। এরপর মেশিনের মাধ্যমে অন্য একটি কার্গো জাহাজে কয়লা অপসারণ করে ক্রেনের মাধ্যমে ডুবন্ত জাহাজটি উদ্ধার করা হবে। তবে আগামী ৩ এপ্রিল সকাল থেকে এ উদ্ধার কাজ শুরু হবে বলে জানায় লাইটার মালিক।

এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারী রাতে মোংলার পশুর নদীতে ৭শ মে. টন. কয়লা নিয়ে ডুবে যায় এমভি বিবি-১১৪৮ নামের একটি সরকারী কার্গো জাহাজ। এটিও উদ্ধার করতে সময় লেগেছে প্রায় ১৫ থেকে ১৮ দিন।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড