• সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ২৯ চৈত্র ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘সততা আর ন্যায়-নিষ্ঠা থাকলে মানুষের পক্ষে অসাধ্য কিছু নয়’

  হাবিবুর রহমান, গাজীপুর মহানগর

০৫ মার্চ ২০২১, ১২:০৭
আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক। ছবি : দৈনিক অধিকার

সততা আর ন্যায়-নিষ্ঠা থাকলে মানুষের পক্ষে অসাধ্য কিছু নয় বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) সন্ধ্যায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের গাজীপুর ক্যাম্পাসে উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদের ৮ বছর পূর্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরা ও সফল মেয়াদান্তে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘উপাচার্য হিসেবে ড. হারুন-অর-রশিদ তার মেয়াদ সফলভাবে ৮ বছর পার করেছেন। আমি মনে করি আজকে তার আনন্দের দিন। তিনি সফলভাবে তার মেয়াদ শেষ করতে পেরেছেন। তিনি এখন মুক্ত হলেন। নিয়মের বেড়াজালে তিনি আর আটকে থাকবেন না। একটি মুক্ত জীবন পাবেন। গবেষণায় পূর্ণ মনোযোগ দিতে পারবেন।’ একই সময় মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ড. হারুন-অর-রশিদ আরও গবেষণাধর্মী বই রচনা করবেন বলেও আশাপ্রকাশ করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী।

আকম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘সততা আর ন্যায়-নিষ্ঠা থাকলে মানুষের পক্ষে অসাধ্য কিছু নয়। ৮ বছর আগে আমরা যখন যাত্রা শুরু করেছিলাম তখন বিশ্ববিদ্যালয়ে আড়াই থেকে তিন বছরের সেশনজট ছিল। বর্তমানে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সেশনজট থেকে মুক্ত। করোনার কারণে কয়েক মাস পিছিয়ে গেলেও নতুন প্রশাসন তা পুষিয়ে নিয়ে অ্যাকাডেমিক কার্যক্রমকে আপ টু ডেট করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।’

তিনি বলেন, বিগত ৮ বছরে সকলের সার্বিক প্রচেষ্টায় ও সহযোগিতায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে যে উন্নয়ন ও ইমেজ পুনরুদ্ধার হয়েছে তাকে ধারণ করে আরও উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিতে হবে। সরকার, রাজনৈতিক দল, প্রতিষ্ঠান নির্বিশেষে সার্বিক উন্নয়ন প্রধানত নির্ভর করে নেতৃত্বের ওপর। নেতৃত্বের আসনে যারা আসীন তাদের প্রত্যেকের উচিত হবে সমাজ, প্রতিষ্ঠান মানুষের সামনে অনুকরণীয় উদাহরণ সৃষ্টি করা। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন প্রশাসন এই অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে সক্ষম হবে এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অল্প সময়ের পরিসরে দেশের একটি অগ্রবর্তী বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে স্থান করে নেবে।

তিনি আরও বলেন, ‘৮ বছরের টার্ম শেষে মাননীয় মন্ত্রীবর্গ, জনপ্রতিনিধি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপুল সংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিশিষ্টজনদের উপস্থিতি ও তাদের ভালবাসা প্রকাশ আমার জন্য শ্রেষ্ঠ পুরস্কার।’

সভাপতির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ‘জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় আজ নতুন উচ্চতায়। উপাচার্য ড. হারুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে ঢেলে সাজিয়েছেন। শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিতে নিরলস কাজ করেছেন তিনি। উপাচার্য হিসেবে তিনি যে বিশেষ ভূমিকা পালন করেছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়।’

এতো বড় বিশ্ববিদ্যালয়কে দক্ষভাবে পরিচালনায় তিনি যে সাহস দেখিয়েছেন তা স্মরণীয় হয়ে থাকবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আজকে যে অর্জন হয়েছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে যে পর্যায়ে তিনি রেখে গেছেন, আমি আশা করব পরবর্তীতে যারা আসবেন এই বিশ্ববিদ্যালয়কে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন সেই প্রত্যাশা আমাদের থাকবে। উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদের মতো সবদিক মিলিয়ে একজন পূর্ণাঙ্গ মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। আমি তার দীর্ঘজীবন কামনা করি।’

আরও পড়ুন : বশেমুরবিপ্রবিতে চুক্তিভিত্তিক প্রকল্প পরিচালক নিয়োগ

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বিশেষ অতিথিদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, গাজীপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি, গাজীপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি, গাজীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান, বিশিষ্ট রাজনৈতিক ও সমাজসেবী অ্যাডভোকেট মো. আজমত উল্লা খান প্রমুখ।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড