• শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

'ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে গেলে রক্ষা পাবেন না কাদের মির্জা'

  এস এম ইউসুফ আলী, ফেনী

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৯:২৫
সংবাদ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীরা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই, বসুরহাট পৌরসভার বহুল আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে জামাত-বিএনপির পেইড এজেন্ট, টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ, বেসামাল উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ফেনী আওয়ামী লীগের তিন নেতা।

মঙ্গলবার(১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ফেনী শহরের একটি রেস্তোরাঁয় যৌথ এক সংবাদ সম্মেলন করেন তাঁরা।

ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সোনাগাজী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন, দাগনভূঞা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগ সভাপতি দিদারুল কবির রতন এবং ফেনী পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী।

সংবাদ সম্মেলনে স্বপন মিয়াজী কাদের মির্জার উদ্দেশে বলেন, 'কাদের মির্জা ১০ হাজার ভোটের মেয়র। আমার ফেনী পৌরসভায় একটি ওয়ার্ডে ১০ হাজার ভোটার রয়েছে। তিনি এমন কী নেতা হয়েছেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র এবং জাতীয় নেতাদের বিরুদ্ধে কথা বলেন। সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কথা বলেন। আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করেন। যার একটা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার হওয়ার ক্ষমতা নেই। তার কিসের এত দম্ভ?

এ সময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন। তিনি বলেন, আমাদের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে গেলে রক্ষা পাবেন না কাদের মির্জা। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা, নেতা ওবায়দুল কাদের ও নিজাম উদ্দিন হাজারীর বিরুদ্ধে আবার কথা বললে তাকে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে ফেনীতে মহাসড়ক অবরোধ করা হবে। কাদের মির্জা যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের নামে বিদেশে পালিয়ে থাকা বিএনপির নেতা তারেক রহমান ও জামায়াতের নেতাদের সাথে যোগাযোগ করেন। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তারেক রহমানের সাথে মিটিং করেন। ভবিষ্যতে বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদের আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন নিশ্চিত করার শর্তে তিনি আওয়ামী লীগের নেতাদের বিরুদ্ধে এসব মিথ্যাচার করছেন। অবিলম্বে তাকে গ্রেফতারসহ দলীয় ও প্রশাসনিকভাবে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবি জানাই আমরা।'

সম্মেলনে দিদারুল কবির রতন বলেন, 'কাদের মির্জা অপরাজনীতির কথা বলে। অথচ তিনি যুবলীগ-ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল করেন। কমিটি বাতিল করার তার কী ক্ষমতা। আওয়ামী লীগ তথা ওবায়দুল কাদেরকে অপ্রিয় করতে এ কাজ করছেন মির্জা। বসুরহাট পৌরসভায় কোনো টেন্ডার হয় না। ২০ থেকে ২২ শতাংশ কমিশন নিয়ে সব করছেন তিনি।'

দিদার আরও বলেন, 'কাদের মির্জা পাগলা মিয়ার পবিত্র মাটি ফেনীতে তুমি পা রাখতে পারবা না। এখানে রাজনীতির চেইন অব কমান্ড আছে। প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন সময়ে খালেদা জিয়াও ফেনীতে পা রাখতে পারেনি। কাদের মির্জা পালানোর পথ খুঁজে পাবা না। তোমার মাতলামি ফেনীর জনগণ পরোয়া করে না। ছেলে তাসিক মির্জাকে দিয়ে বসুরহাটে বিভিন্ন অপকর্ম করে যাচ্ছে মির্জা। সেখানে অস্ত্রের নেতৃত্ব দেয় তার ছেলে। মির্জা মাদকের বড় চোরাকারবারি।'

এ ছাড়াও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতার ওপর কাদের মির্জার নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরেন দিদার।

নোয়াখালীর প্রশাসনের উদ্দেশে দিদারুল কবির রতন বলেন, 'মির্জার নির্দেশে আমাদের কোনো নেতা-কর্মীকে হয়রানি করবেন না। তাহলে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে। দাগনভূঞার কোনো লোকের সাথে অসদাচরণ করা হলে প্রয়োজনে আমরা কোম্পানীগঞ্জ ঘেরাও করবে।'

এ ব্যাপারে কাদের মির্জা বলেন, ‌আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতারা ঘরে ঢুকে গেছেন, হাইব্রিড নেতারা মাঠে থেকে টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি করছে। দলের এসব আগাছাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে তিনি বাধ্য হয়েছেন।

মির্জা আরও বলেন, 'জনসমর্থনহীন এক শ্রেণির চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীদের কারণে জনপ্রিয় দল আওয়ামী লীগ আজ প্রশ্নের সম্মুখীন হচ্ছে'।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড