• মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৫ মাঘ ১৪২৭  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুষ্টিয়ায় ভুয়া ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে চলছে ড্রিম হাউজ বিল্ডিং ডিজাইন ফার্ম

  সারাদেশ ডেস্ক

১৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:৪৮
ভুয়া ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে পরিচালনা করছে ড্রিম হাউজ ডিজাইন
ভুয়া ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে পরিচালনা করছে ড্রিম হাউজ ডিজাইন (ছবি : সংগৃহীত)

কুষ্টিয়া শহরে একটি প্রতারক চক্র ভুয়া ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে ড্রিম হাউজ ডিজাইন নামক একটি বিল্ডিং ডিজাইন ফার্ম।

জানা যায়, কুষ্টিয়ার শহরের এনএসরোডস্থ সুকান্ত বিপনী কেন্দ্র মার্কেটের ২য় তলায় রয়েছে ড্রিম হাউজ ডিজাইন নামক একটি বিল্ডিং ডিজাইন ফার্ম এর অফিস। যারা নিজেদের স্বপ্নের বাড়ি নির্মাণ করতে চান তাদের আকর্ষিত করার জন্য অফিসের সামনে বিশাল বিলবোর্ড, কুষ্টিয়ার শহরের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে ঝকমকা ব্যানার-ফেস্টুন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাহারি বাহারি বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছে এই চক্রটি। এই বিজ্ঞাপনে ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আব্দুল জব্বার, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ তৌফিক এলাহী ও আর্কিটেক্ট শুভাশীষ সেন তন্ময় এর নাম ব্যবহার করা হয়েছে।

কিন্তু বিজ্ঞাপণে ব্যবহৃারিত ইঞ্জিনিয়ারদের সাথে কথা হলে তারা জানান, ড্রিম ডিজাইন হাউজ নামক বিল্ডিং ডিজাইন ফার্ম এর সাথে তাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই। ইঞ্জিনিয়ার মোঃ তৌফিক এলাহী বলেন, তারা আমার নাম ব্যবহার করতো। আমি যখনই বুঝতে পেরেছি এটি একটি প্রতারক চক্র, আমি তখন সরে এসেছি। বর্তমানে আমার সাথে তাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই। এখনো আমার নাম কেন ব্যবহার করছে তা আমার বোধগম্য নয়, তবে এটি যথারীতি অন্যায়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ড্রিম হাউজ ডিজাইনের পরিচালক মোঃ হাবিবুর রহমান টোটন। তিনি নিজেকে কুষ্টিয়া পলিটেকনিক এর প্রাক্তণ ছাত্র ও নাটোর ইউনিভার্সিটিতে অধ্যায়নরত দাবী করলেও তিনি কুষ্টিয়া ইন্সটিটিউট অফ সাইন্স এন্ড টেকনোলজি নামক একটি প্রাইভেট ইন্সটিটিউট থেকে ডিপ্লোমা পাশকৃত।

এদিকে কোন ডিপ্লোমা পাশধারী ব্যক্তি নিজের নামের পূর্বে ইঞ্জিনিয়ার লিখতে পারেন না। কিন্তু হাবিবুর রহমান টোটন নিজের নামের পূর্বে ইঞ্জিনিয়ার লিখে বিভিন্ন ব্যানার, ফেস্টুন, ভিজিটিং কার্ড ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেকে জাহির করেন। যা আইনগত ভাবে অপরাধ ও শাস্তিযোগ্য।

এ বিষয়ে ইঞ্জিনিয়ারস্ ইন্সটিটিউট অফ বাংলাদেশ (আইবি)’র কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুর উপকেন্দ্রের সাবেক সম্পাদক প্রকৌশলী আরিফুর রহমান জানান, ডিপ্লোমাপাশধারী কোন ব্যক্তি নিজের নামের আগে ইঞ্জিনিয়ার লিখতে পারে না। যদি লিখে থাকে তাহলে এটা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এমন প্রতারকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

কুষ্টিয়া ওজোপাডিকো লিঃ এর নির্বাহী প্রকৌশলী প্রণব দেব নাথ এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ডিপ্লোমা পাশধারীদের নামের আগে ইঞ্জিনিয়ার লেখার কোন সুযোগ নেই। আইবি এসব প্রতারক ইঞ্জিনিয়ারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেন।

এদিকে একটি স্থাপনা নির্মাণ করতে হলে প্রথম পর্যায়ে মাটি পরীক্ষা করা বাধ্যতামূলক। ড্রিম হাউজ বিল্ডিং এর পরিচালক হাবিবুর রহমান টোটন এর কাছে এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাটি পরীক্ষা করার জন্য ঢাকায় আমাদের নিজস্ব অফিস রয়েছে। আমরা কুষ্টিয়া থেকে মাটির নমুনা নিয়ে ঢাকায় পাঠায়। কিন্তু হাবিবুর রহমান টোটন ঢাকায় যে অফিসের ঠিকানা দেন সেই অফিসের কোন অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

এদিকে তার ড্রিম হাউজ বিল্ডিং ফার্মে মাটি পরীক্ষার করার জন্য সবুজ নামের একজন দায়িত্বে রয়েছে। যিনি কম্পিউটারে ডিপ্লোমা করলেও নিজেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার দাবী করেন। সম্পর্কে সে টোটন এর খালাতো ভাই বলে জানা গেছে।

টোটন বলেন, আমার অফিসে আমার আন্ডারে পাঁচজন বিএসসি ইঞ্জিনিয়ার চাকুরী করেন। তার কাছে এই ৫ জন ইঞ্জিনিয়ারের পরিচয় জানতে চাইলে তিনি তা জানাতে পারেননি।

কুষ্টিয়া পৌর অঞ্চলের মধ্যে কোন স্থাপনার প্লান পাশ করতে হলে কোন ডিজাইন ফার্ম অথবা ব্যক্তিগত মালিকানায় লাইসেন্সধারী হতে হবে। কিন্তু ড্রিম হাউজ ডিজাইনের নামে কুষ্টিয়া পৌরসভায় কোন নকশার লাইসেন্স না থাকলেও মোঃ তৌফিকুল ইসলাম নামে একটি ব্যক্তিগত পৌর নকশার লাইসেন্সে ড্রিম হাউজ ডিজাইনের নকশাকৃত প্লানগুলো জমা হয়। এই বিষয়ে তৌফিকুল ইসলামকে ফোন দিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ড্রিম হাউজ ডিজাইনের ব্যবসায়িক পার্টনার।

এদিকে আইবি’র নিয়মানুযায়ী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়াররা ৪তলা পর্যন্ত বিল্ডিং ডিজাইন করতে পারেন। কিন্তু পৌরসভায় জমাকৃত ডিজাইন সিটে দেখা যায়, মোঃ তৌফিকুল ইসলাম এর লাইসেন্সে ৪তলার উপরে যে সব ডিজাইন করা হয়েছে সেখানে মোঃ রায়হান শেখ নামক একজন বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারের নাম ও আইবি’র মেম্বারশীপ নাম্বার ব্যবহার করা হয়েছে। কিন্তু আইবি’র ওয়েব সাইটে ঢুকে এই নামের কোন অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

তৌফিকুল ইসলামের নিজ নামে নিবন্ধিত পৌর নকশার লাইসেন্সটি ড্রিম হাউজ ডিজাইন ফার্মকে প্রতারণা করার সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে। সেই কারণে তৌফিকুল ইসলামের লাইসেন্স বাতিলের জন্য একাধিক প্রকৌশলী দাবী জানিয়েছেন।

এই প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রয়োজন বলে মনে করেন সচেতনমহল।

ওডি

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড