• শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ৯ মাঘ ১৪২৭  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শ্রমিক আন্দোলনে পুলিশের লাঠিচার্জ, আহত ২০

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

০৯ জানুয়ারি ২০২১, ২১:১৫
ছবি : সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে আদমজী ইপিজেডে বকেয়া বেতন ভাতার দাবিতে কুনতং এ্যাপারেলস-এর আন্দোলনরত শ্রমিকদের উপর পুলিশ লাঠিচার্জ ও টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করেছে। এসময় শ্রমিকরা সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে। পুলিশের সাথে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় কমপক্ষে ২০জন শ্রমিক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত আদমজী ইপিজেডের প্রধান ফটকের সামনের এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার সকাল থেকেই কুনতং এ্যাপারেলস এর শ্রমিকরা আদমজী ইপিজেডের সামনে অবস্থান করে। একপর্যায়ে তারা বেতন ভাতার দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকে। পুলিশ এসময় আন্দোলনরত শ্রমিকদের সড়ক থেকে সরে যেতে বললে শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। বিক্ষোভরত শ্রমিকরা পুলিশের উপর ইট পাটকেল ছুঁড়লে পুলিশও পাল্টা কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে ও লাঠিচার্জ করে।

ঘটনায় শ্রমিক জাগরণ মঞ্চের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম গোলক, গার্মেন্ট ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলা কমিটির সদস্য দিলীপ কুমার দাস, শ্রমিক সালমা, সুমন, পারভেজসহ শ্রমিক জাগরণ মঞ্চের নেতা রফিকুল ইসলাম হাবিব প্রমুখ আহত হওয়ার বিষয়টি শ্রমিক নেতৃবৃন্দ নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা আরো জানায়, শনিবার দ্বিতীয় দিনের মতো সড়ক অবরোধ করে বকেয়া বেতন আদায়ের দাবিতে আন্দোলন করে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। গত বৃহস্পতিবারও সড়ক অবরোধ করে শ্রমিকরা। দ্বিতীয় দিনে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করে শ্রমিকরা। এসময় শিল্প পুলিশ, জেলা পুলিশ ও বেপজার নিরাপত্তা কর্মীরা শ্রমিকদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও হতাহতের ঘটনা ঘটে।

আন্দোলনরত শ্রমিকদের অভিযোগ, কুনতং এ্যাপারেলস লিমিটেড গত বছরের ১০ আগস্ট দুই দিনের ছুটি ঘোষণা দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি লে অফ ঘোষণা করে। তবে বন্ধ হওয়ার পরেও শ্রমিকদের ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা করে বেতন পরিশোধ করে আসছিল মালিকপক্ষ। শনিবার বেতন দেওয়ার কথা থাকলেও গার্মেন্টস কর্তৃপক্ষ আগামী ১২ জানুয়ারি বেতন দেওয়ার বলে। আর এ কারণেই প্রথমে সকাল ৮টায় আদমজী ইপিজেডের সামনে তারা অবস্থান নেয়। শ্রমিকরা কোনো রকম অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি না করলেও পুলিশ অযথা তাদের উপর লাঠি চার্জ করেছে বলেও জানান তারা। পুলিশ, ইপিজেডের আনসার ও নিরাপত্তাকর্মীরা শ্রমিকদের লাঠিচার্জ করে।

শ্রমিক জাগরণ মঞ্চের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম গোলক দৈনিক অধিকারকে বলেন, শনিবার সকালে শ্রমিকরা তাদের বকেয়া বেতনের জন্য আদমজী এলাকায় অবস্থান করছিল। এসময় পুলিশ শ্রমিকদের উপর লাঠি চার্জ করে। পুলিশের সাথে সাথে স্থানীয় আ. লীগ নেতা মজিবুর রহমানের লোকজনও শ্রমিকদের উপর হামলা চালায়। শ্রমিকদের ন্যায্য দাবি না মানলে এই আন্দোলন অব্যাহত চলতে থাকবে বলেও তিনি জানান।

এব্যাপারে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ-৪ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেন জানান, আদমজী ইপিজেডের কুতনং এ্যাপারেলসে প্রায় ৬হাজার শ্রমিক কাজ করতো। লে-অফ চলাকালীন সময়েও প্রতিষ্ঠানটি শ্রমিকদেরকে বেতনের একটা অংশ প্রদান করে আসছিল। শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ না করে মালিকপক্ষ কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করায় এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড