• বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭  |   ১৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মাগুরায় মাদকাসক্ত ছেলের অত্যাচারে বাবার আত্মহত্যা

  সারাদেশ ডেস্ক

০৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:০২
ছবি : জেলার ম্যাপ

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার নাকোল গ্রামে মাদকাসক্ত ছেলের মারধর ও মাদকের টাকার যোগান দিতে না পেরে আব্দুল আজিজ মল্লিক (৬৮) নামে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

পরিবার ও পুলিশ জানায়, স্ত্রী আছিয়া বেগম, দুই ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে নাকোল এলাকার ঋষি পাড়ার বাসিন্দা ছিলেন কৃষক আব্দুল আজিজ।

সম্প্রতি তার ছোট ছেলে সুমন মল্লিক (৩০) মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। মাদক কেনার টাকার জন্য পরিবারের সদস্যদের ওপর অত্যাচারের মাত্রা বাড়তে থাকে। দরিদ্র কৃষক বাবার পক্ষে তাকে টাকা দেওয়া সম্ভব হচ্ছিল না। একপর্যায়ে বাবাসহ পরিবারের লোকদের গায়ে হাত তুলতে শুরু করেন সুমন।

শুক্রবার বিকেলে মাদক কেনার টাকা না পেয়ে বাবা আব্দুল আজিজ মল্লিককে মারধর করেন তিনি। এ অপমান সইতে না পেরে তিনি কীটনাশক পান করেন। টের পেয়ে বড় ছেলে পারভেজ মল্লিক বাবাকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মাগুরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পারভেজ মল্লিক বাদী হয়ে বাবাকে আত্মহত্যা করতে প্ররোচিত করার অভিযোগে ছোট ভাই সুমনের বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় মামলা করেছেন। পরে অভিযুক্ত সুমন মল্লিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মৃতের স্ত্রী আছিয়া বেগম বলেন, ছোট ছেলে সুমনের স্ত্রী ও একটি চার বছরের ছেলে রয়েছে। সে সংসারের কোনো খোঁজখবর রাখে না। মাদকের টাকা না পেলে সে বেপরোয়া হয়ে উঠতো। একপর্যায়ে বাবাকেও মারধর শুরু করে।

নাকোল পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের (আইসি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রসেনজিৎ বিশ্বাস জানান, মামলার পর সুমনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড