• বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ৬ মাঘ ১৪২৭  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ইটনায় পটকা মাছ খেয়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

  সারাদেশ ডেস্ক

০৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:১৮
পটকা মাছ
পটকা মাছ (ছবি : সংগৃহীত)

কিশোরগঞ্জের ইটনায় পটকা মাছ খেয়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যুসহ তিন মেয়ে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

বুধবার (০৬ জানুয়ারি) চিকিৎসাধীন অবস্থায় কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান সঞ্চিতা মালাকার (৪৫)। এর আগে পটকা মাছ খেয়ে গত রাতে ইটনার মৃগা ইউনিয়নের পূর্বপাড়ার নিজ বাড়িতে মারা যান হেমেন্দ্র মালাকার (৫৫)। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনজন হলেন- সীমা মালাকার (১৬), তমা (১৩) ও প্রিমা (৪)। তাদের সবার বাড়ি ইটনা উপজেলার মৃগা ইউনিয়নের পূর্বপাড়ায় ।

পরিবার ও হাসপাতাল সুত্র জানায়, গতকাল মঙ্গলবার রাতে পটকা মাছ খেয়ে পরিবারের ৫ জন অসুস্থ হয়ে পড়ে এবং বাড়িতেই হেমেন্দ্র মালাকার নামে একজন মারা যায়।

পরে বুধবার সকালে তাদের ইটনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেলে হেমেন্দ্র মালাকারের স্ত্রী সঞ্চিতা মালাকার মারা যান । সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তাদের তিন মেয়ে সীমা, তমা ও প্রিমা।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা: মো. মুজিবুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, পটকা মাছ না খাওয়ার জন্য আমরা বারবার সচেতন করেছি এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সচেতনমূলক পোস্ট করেছি। তিনি আরও জানান, পটকা মাছ খাওয়া উচিত না।

ইটনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুর্শেদ জামান বলেন, পটকা মাছ খেয়ে একই পরিবারে সবাই অসুস্থ হয়ে শ্বাসকষ্ট শুরু হলে বাড়িতেই হেমেন্ত মালাকার মৃত্যু হয়। কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্তায় সানজিতা মালাকার মৃত্যু হয়। অন্যরা সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ওডি

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড