• রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আমতলীতে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর আত্মহত্যা

  আমতলী প্রতিনিধি, বরগুনা

১৫ অক্টোবর ২০২০, ১৪:০২
বরগুনা
নিহত গৃহবধূ

বরগুনার আমতলীতে মারিয়া আক্তার (১৮) নামে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূ গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বুধবার দুপুর ১২ টার দিকে পিতা সোলায়মান সরকারের বাড়িতে। থানায় মামলা দায়ের। আজ মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত এক বছর পূর্বে উপজেলার চাওড়া ইউনিয়নের কাউনিয়া গ্রামের বাবুল মৃধার পুত্র ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক রাকিবুল ইসলামের সাথে একই ইউনিয়নের চন্দ্রা গ্রামের সোলায়মান সরকারের কন্যা মারিয়া আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক করে গোপনে বিয়ে হয়। পরে উভয় পক্ষের পরিবার তাদের সম্পর্ক মেনে নেয়। এরপর রাকিবুল ইসলাম জীবিকার তাগিদে ঢাকায় গিয়ে রাজমিস্ত্রির শ্রমিক হিসেবে কাজ শুরু করেন।

অপরদিকে স্ত্রী মারিয়া সন্তান সম্ভাবা হলে তাকে স্বামী রাকিবুল ইসলাম মাস খানেক পূর্বে শ্বশুর সোলায়মান সরকারের বাড়িতে রেখে যায়। সেই সময় থেকে স্ত্রী মারিয়া তার পিতার বাড়িতেই অবস্থান করছেন। পিতার বাড়িতে থাকা অবস্থায় বুধবার দুপুর ১২টার দিকে সবার অজান্তে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ মারিয়া পিতা সোলায়মান সরকারের বাড়ির উত্তর পাশের বারান্দার চালের রুয়ার সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। স্বজনরা ঘরের বারান্দায় মারিয়ার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ নামিয়ে থানায় নিয়ে আসে। ঘটনার সময় স্বামী রাকিবুল ইসলাম ঢাকায় অবস্থান করেছিলো। তবে আত্মহত্যা কারণ জানা যায়নি।

পুলিশ গতকাল (সোমবার) মারিয়ার মরদেহের ময়না তদন্ত করতে চাইলেও উভয় পরিবারের পক্ষ থেকে মরদেহের ময়নাতদন্ত না করতে আপত্তি জানানো হয়। পুলিশ উভয় পরিবারের আপত্তি উপেক্ষা করে আজ বৃহস্পতিবার সকালে মারিয়ার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরণ করেন।

নিহতের পিতা সোলায়মান সরকার কান্না কণ্ঠে জানান, আমার মেয়ে সন্তান সম্ভাব্য মারিয়া গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তা তিনিসহ পরিবারের কেহ বলতে পারছেন না।

এ বিষয়ে আমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহআলম হাওলাদার মুঠোফোনে বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল উভয় পরিবার মরদেহের ময়নাতদন্ত করতে অপরাগতা প্রকাশ করলেও আজ সকালে মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড