• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মুন্সীগঞ্জে গ্যাস সিলিন্ডারের গোডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

  মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:২৭
অগ্নিকাণ্ড
মুন্সীগঞ্জে গ্যাস সিলিন্ডারের গোডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড (ছবি : দৈনিক অধিকার)

মুন্সীগঞ্জে একটি গ্যাস সিলিন্ডারের গোডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ভোরে জেলার সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের সুখবাসপুর এলাকায় এলপি গ্যাস মজুত রাখার ওই গোডাউনে ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডে ওই গোডাউনের ভেতরে থাকা পিকআপসহ কয়েক শতাধিক সিলিন্ডার ভস্মীভূত হয়। এতে প্রায় দেড় কোটির টাকার মতো ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছে গোডাউনের মালিক পক্ষ। তবে অল্পের জন্য বড় ধরনের বিপর্যয় ঘটেনি বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হারুন-অর-রশিদের প্রতিষ্ঠান ‘জাহিদুল ট্রেডার্সে’ এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়রা জানান, এলপি গ্যাসের গোডাউনটিতে খালি ও ভরা সিলিন্ডার রাখা হয়। এতে হাজারেরও অধিক গ্যাস সিলিন্ডার থাকে। আইন মেনে অগ্নিনির্বাপকের তেমন কোনো ব্যবস্থা ছাড়াই অবাধে গ্যাস সিলিন্ডার রাখা হচ্ছিল সেখানে। যা পরবর্তীকালে জেলার বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হত।

বুধবার সকালে হঠাৎ ওই গোডাউনে একটি বিকট শব্দ হয়। পরে আশপাশের লোকজন বাড়ি থেকে বেড়িয়ে জানতে পারেন ওই গোডাউনে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়েছে। এতে মুহূর্তেই গ্যাসের গোডাউনে আগ্নিকাণ্ডের খবর চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, সরকারি নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই এলপি গ্যাসের এই গোডাউনটি মুন্সীগঞ্জ-টঙ্গিবাড়ী সড়কের নাটেশ্বর বোদ্ধ বিহার যাওয়ার ব্যস্ত রাস্তার ডান পাশে গড়ে উঠেছে। গোডাউনটির সামনে অনেক দোকানও রয়েছে। এছাড়া গোডাউনটির ৩০ গজ পেছনে রয়েছে ঘন জনবসতি। তবে বিধ্বস্ত গোডাউনটি বর্তমানে তালাবন্ধ অবস্থায় রয়েছে। এ সময় গোডাউনের ভেতরে পুড়ে যাওয়া কয়েক শতাধিক সিল্ডিন্ডার দেখা যায়। আর গোডাউনের পাশেই পরিত্যক্ত একটি জায়গায় আগুনে পুড়ে যাওয়া আরও কিছু গ্যাস সিলিন্ডার রাখা হয়েছে। সেখান থেকে এখনো গ্যাস বেড় হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, নীতিমালা লঙ্ঘন করে এই গোডাউনটিতে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম (এলপি) গ্যাসের সিলিন্ডার মজুদ করা হয়েছে। এতে দীর্ঘদিন ধরে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা ছিল। আজ সেটা বাস্তবে রূপান্তরিত হলো। এসব গোডাউন নীতিমালা লঙ্ঘন করে দাহ্য পদার্থ বিক্রির ফলে যে কোনো সময় বিস্ফোরণ ও দাহ্য পদার্থ থেকে আগুনে প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।

জাহিদুল ট্রেডার্স এলপি গ্যাসের গোডাউনের অনুমোদন আছে কিনা জানতে চাইলে ওই গোডাউনের মালিক ও রামপাল ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, ‘এখন আমি অসুস্থ আছি। এ বিষয়ে কিছু বলতে পারবো না। এখানে সব খালি সিলিন্ডার ছিল। সিলিন্ডারে গ্যাস ছিলনা।’

সিলিন্ডার বিক্রি ও রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে অনুমতি নেওয়া আছে কিনা? জানতে চাইলে মালিক পক্ষের ভাগ্নে ও প্রতিষ্ঠানটির দেখভালের দায়িত্বে থাকা মুজাহিদুর রহমান বলেন, ‘কাগজ পত্র আছে। এখন দেখাতে পারব না।’

এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আবু বক্কর জামান দৈনিক অধিকারকে বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়ার সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, গ্যাস সিলিন্ডার লিকেজের কারণে এই অগ্নিকাণ্ড ঘটনা ঘটেছে। ওই গোডাউনের তিনটি ট্রাক ভর্তি লোড করা গ্যাসের সিলিন্ডার ছিল। সৌভাগ্যবশত তেমন ক্ষতি হয়নি। পরিস্থিতি এদিক-সেদিক হলে ওই এলাকায় বড় ধরনের বিপর্যয় ঘটত।’

এলপি গ্যাস মজুদ করার বিষয়ে ওই গোডাউনটির অনুমোদন আছে কিনা জানতে চাইলে এই কর্মকর্তা বলেন, ‘অনুমোদনের কাগজপত্র মালিক পক্ষের কাছে চেয়েছি। তারা তাৎক্ষনিক কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। তবে বলেছেন, দুপুরের মধ্যে ফায়ার সার্ভিস অফিসে এসে কাগজপত্র দেখাবেন। দেখাতে না পারলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ দিকে, নীতিমালা লঙ্ঘন করে মুন্সীগঞ্জ জেলায় যত্রতত্র বিক্রি হচ্ছে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম (এলপি) গ্যাসের সিলিন্ডার। জেলার বিভিন্ন এলাকায় ওষুধের দোকান, বিপণী বিতান, মুদির দোকান, ক্রোকারিজের দোকানসহ বিভিন্ন ধরনের দোকানে অবৈধভাবে এসব এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে। এ নিয়ে দৈনিক অধিকারের অনলাইন ভার্সনে ‘মুন্সীগঞ্জে যত্রতত্র গ্যাসের সিলিন্ডার বিক্রি’ এই শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। সংবাদ প্রকাশের পর মুন্সীগঞ্জের অবৈধভাবে যত্রতত্র গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি বন্ধ করতে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত একাধিক অভিযান চালিয়েছেন। তবুও বন্ধ হয়নি অবৈধভাবে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করা এসব প্রতিষ্ঠান।

আরও পড়ুন : পঞ্চগড়ে সড়কে ঝরল ২ কারারক্ষীর প্রাণ

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘যারা অবৈধভাবে যত্রতত্র গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করছেন তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। ইতোমধ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে মামলা ও জরিমানা করা হয়েছে। অবৈধভাবে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করা শূন্যের কোটায় আনার জন্য কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড