• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাঙ্গামাটিতে করোনার পর আদালতের প্রথম রায়

মা-ছেলেকে মারধর ও ছুরিকাঘাত, আসামির দেড় বছরের কারাদণ্ড

  রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি

১০ আগস্ট ২০২০, ২০:০০
কারাদণ্ড
মা-ছেলেকে মারধর ও ছুরিকাঘাত, আসামির দেড় বছরের কারাদণ্ড (প্রতীকী ছবি)

রাঙ্গামাটি পৌর শহরের কাঁঠালতলী এলাকার বাসিন্দা মুন্নি বেগম (৫০) ও তার ছেলে হুমায়ুন কবিরকে মারধর ও ছুরিকাঘাতের মামলায় অবশেষে ফাঁসলেন আসামি ফয়সাল খান।

মামলা প্রত্যাহারে ভয়ভীতি ও নানা চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা হয়নি তার। দীর্ঘ ১০ বছর পর তাকে দেড় বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ডসহ অনাদায়ে আরও দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে দ্রুত রায় কার্যকর করতে ইস্যু করা হয়েছে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা।

সোমবার (১০ আগস্ট) রাঙ্গামাটি চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ এন এম মোরশেদ খানের আদালত এই মামলার রায় ঘোষণা করা হয়।

রায়ে আসামি ফয়সাল খানকে প্যানেল কোড এর ৩২৪ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে সাজা প্রদান করা হয়। প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আদালত এটিই প্রথম কোনো মামলার রায় ঘোষণা দিল। আদালতের এই রায়ে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন মুন্নি বেগমের মেয়ে ও মামলার বাদী আনোয়ারা বেগম।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. মনজুরুল ইসলাম দৈনিক অধিকারকে জানান, ২০১০ সালের ৫ মার্চ কোতোয়ালি থানায় আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে আসামী ফয়সাল খান, হারুন খান ও হানিফ খানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পরে তদন্ত করে চারজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে পুলিশ।

আরও পড়ুন : বাবা-মা হারা সন্তানের লাশ মিলল পানিতে

একই বছরের ৩১ মে চার্জশীট দাখিলের পর ২০১১ সালের ৫ জানুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু হয়। তবে সোমবার মামলার রায়ে অপর দুই আসামি হারুন খান ও হানিফ খানকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন আদালত।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড