• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

হাতীবান্ধায় দুই সাংবাদিকের মারামারি, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি

০৮ আগস্ট ২০২০, ২৩:৪৫
থানা
হাতীবান্ধা থানা (ছবি : সংগৃহীত)

বালু ব্যবসার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় দুই যুবকের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় একে অপরকে দায়ী করে ওই দুইজনই স্থানীয় থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন।

দ্বন্দ্বে জরানো ওই দুই যুবক হলেন- উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের আজিজার রহমানের ছেলে সেলিম সম্রাট ও সিঙ্গিমারী ইউনিয়নের দক্ষিণ গড্ডিমারী গ্রামের শহিদুল্লাহর ছেলে আব্দুর রহিম। ওই দুই যুবক নিজেদের পত্রিকার সাংবাদিক দাবি করেছেন।

এ ঘটনায় তারা উভয়ে স্থানীয় থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগও করেছেন।

জানা গেছে, হাতীবান্ধা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় শ্যালো মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন ও বিক্রিকে কেন্দ্র করে একাধিক সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। ওই সিন্ডিকেটে জড়িয়ে পড়ে সাংবাদিক দাবি করে কতিপয় যুবক। অভিযোগ রয়েছে, ওই সব নামধারী সাংবাদিকদের কমিশন দিয়ে ম্যানেজ করে চলে বালু ব্যবসা।

এই বালু ব্যবসার আধিপত্য নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে সেলিম সম্রাটের ও আব্দুর রহিমের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। পরে ওই দ্বন্দ্বের ধরে শুক্রবার (৭ আগস্ট) মধ্যরাতে বড়খাতা দোয়ানী মোড় এলাকায় ওই দুই যুবকের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে।

আব্দুর রহিমের দাবি- তিনি সংবাদ সংক্রান্ত কাজে ওই এলাকায় গেলে সেলিম সম্রাটের তাকে মারধর করেন। আর সেলিম সম্রাটের দাবি- পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাকে মারধর করেন আব্দুর রহিম।

আরও পড়ুন : একই পরিবারের তিনজনসহ বাসচাপায় নিহত ৭ জনের পরিচয় সনাক্ত

এ ব্যাপারে হাতীবান্ধা থানার ওসি (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম দৈনিক অধিকারকে বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড