• বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৭ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাঙ্গামাটির পর্যটন খাতে লোকসান ১১ কোটি টাকা

  রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি

০৮ আগস্ট ২০২০, ১৫:৩০
রাঙ্গামাটি
সরকারি পর্যটন কমপ্লেক্স

করোনার প্রভাবে রাঙ্গামাটির পর্যটন খাতে লোকসান গেছে ১১ কোটি টাকা। গত ৪-৫ মাসে সরকারি পর্যটন কমপ্লেক্স এবং রেস্টুরেন্ট, আবাসিক হোটেল, পরিবহনসহ পর্যটন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ব্যবসায় এসব লোকসান গেছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্তৃপক্ষ জানায়, মার্চ হতে জুলাই পর্যন্ত করোনার কবলে পড়ে রাঙ্গামাটির পর্যটন শিল্পে মারাত্মক ধস নামে। ব্যবসা বন্ধ থাকায় এ সময়ে পর্যটন সংশ্লিষ্ট সবাইকে লোকসান গুনতে হয়েছে।

রাঙ্গামাটি পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক সৃজন বিকাশ বড়ুয়া বলেন, করোনার প্রভাবে গত ৪-৫ মাসে এ সরকারি পর্যটন কমপ্লেক্সের দেড় কোটি টাকার অধিক লোকসান হয়েছে। যে সময়ে পর্যটন মৌসুম শুরু, ঠিক সে সময়ে পর্যটন ব্যবসা বন্ধ হয়ে গেছে। তারপরও পর্যটন সেক্টরের কিছু কিছু জায়গা থেকে আমাদের সামান্য আয় ছিল, যে কারণে আমরা বেঁচে আছি। আশা করা যাচ্ছে, শিগগর পর্যটন শিল্প চালু করা যাবে। তবে চালু হলেও ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে যথেষ্ট সময় লাগবে। এখন ওভার ফোনে অগ্রিম অনেক বুকিং পাওয়া যাচ্ছে।

রাঙ্গামাটি আবাসিক হোটেল মালিক ও ব্যবসায়ী সমিতির অর্থ সম্পাদক এবং হোটেল গ্রিন ক্যাসেলের সত্ত্বাধিকারী ইমতিয়াজ সিদ্দিক আহাদ বলেন, রাঙ্গামাটি পর্যটন শহর। এখানে পর্যটনের সঙ্গে জড়িত এখানকার আবাসিক হোটেল ও রেস্টুরেন্টগুলো। শহরের মধ্যে ছোট বড় ৫০-৬০ আবাসিক হোটেল রয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে গত ৪-৫ মাসে আবাসিক হোটেল খাতে ৫-৬ কোটি টাকার অধিক লোকসান গেছে। এতে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন হোটেল মালিকরা। বর্তমানে রাঙ্গামাটি আবাসিক হোটেল মালিকরা কর্মচারীর বেতন-ভাতা ও বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ নিয়ে খুব দুঃচিন্তায় রয়েছেন।

রাঙ্গামাটি রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এম. আকবর আলী বলেন, করোনাকালে প্রথম থেকে এ পর্যন্ত রেস্টুরেন্ট মালিক ও কর্মচারীরা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। রেস্টুরেন্ট মালিকদের লোকসান গেছে প্রায় -৪-৫ কোটি টাকা। বিদ্যুৎ বিলসহ বিভিন্ন আনুষঙ্গিক বকেয়া রয়ে গেছে। জেলা শহরের মধ্যে প্রায় একশ’ রেস্টুরেন্ট রয়েছে। এসব রেস্টুরেন্ট মালিককে ৪-৫ মাস ধরে লোকসান গুণতে হয়েছে।

জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ বলেন, সরকারের দিক নির্দেশনা পেলেই খুব শীগ্রহি পর্যটন শিল্প খুলে দেয়া হবে। চলতি মাসের ৬-৭ তারিখের মধ্যে পর্যটন স্পটগুলো খুলে দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ধীরে ধীরে সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে। তবে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড