• শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রাকে করে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ

  গাজীপুর প্রতিনিধি

০৮ আগস্ট ২০২০, ১২:২৮
গাজীপুর
কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য সাধ্যমত ব্যবহার করছেন বিভিন্ন ধরনের যানবাহন

আপনজনদের সাথে ইদের ছুটি কাটিয়ে আবার কর্মস্থলের দিকে ফিরছেন মানুষগুলো জীবন-জীবিকার তাগিদে।পবিত্র ইদুল আযহাকে উপলক্ষ করে তারা প্রিয়জনদের সাথে ইদের আনন্দ ভাগাভাগি করার জন্য চলে যান গ্রামের বাড়ীতে।ইদের ছুটি শেষে ঢাকা, গাজীপুর, সাভার, আশুলিয়ার পোশাক কারখানাগুলো খুলতে শুরু করায় মানুষ নিজেদের কর্মস্থলে যেতে শুরু করেছেন। আর কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য সাধ্যমত ব্যবহার করছেন বিভিন্ন ধরনের যানবাহন। তবে নিম্ন আয়ের বেশিরভাগ মানুষের ভরসা খোলা ট্রাক ও মিনি পিকআপ।

সরেজমিনে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে গিয়ে দেখা যায়, খোলা ট্রাক এবং পিক-আপে করে গ্রাম থেকে শহরমুখী যাচ্ছে নিম্ন আয়ের মানুষেরা।এক্ষেত্রে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব।জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অনেকটা গাদাগাদি করেই তারা বসে আছে।তপ্ত রোদে সবচেয়ে বেশি কষ্ট পাচ্ছে শিশুরা। অথচ প্রতিনিয়ত এসব ছোট পিক-আপের দুর্ঘটনার খবর পাওয়া যায়। প্রতিটি ছোট পিক-আপে ১০ থেকে ২০ জন যাত্রী বহন করছে।

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ থানার গার্মেন্টসকর্মী লাইলী বেগম জানান,বাসের ভাড়া অনেক বেশি সেই তুলনায় ট্রাকের ভাড়া কম। এই জন্য আমরা ট্রাক দিয়ে যাচ্ছি। ঝুঁকির কথা চিন্তা করলে তো হবে না, আমরা গরীব মানুষ।

গার্মেন্টস কর্মী কামাল হোসেন জানান, কয় টাকা আর বেতন পাই? বাসা ভাড়া দিয়ে যা থাকে তা দিয়েই কুনোমতে সংসার চালাই। তবে ঈদের বোনাস পাওয়ার কারণে প্রতি ইদে বাড়িতে আসা হয় । এখন তো টাকা পয়সা সব শেষ, তাই ট্রাকে করেই কর্মস্থল গাজীপুর যাচ্ছি।

শেরপুর থেকে ঢাকাগামী এক গার্মেন্টস কর্মী জানান, আমরা গরীব মানুষ কয় টেহা আর বেতন পাই। বাসের হেলফাররা ডাহাইতের মতো বেশি বেশি ভাড়া চায়। এলিগ্গা আমরা টাহে হইরা যায়। পেফারো লেইক্কা দেইনযে ডেহাইতরা যে বাস ভাড়া কম রাহে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পিক-আপ চালক জানান, ইদের সময় বাস ভাড়া বেশি থাকার কারণে নিম্ন আয়ের মানুষেরা এই সকল যানবাহন ব্যবহার করে থাকে। আমাদেরও ইনকাম বেড়ে যায়। আর গার্মেন্টসের যাত্রী দেখলে পুলিশও ধরেনা। ঝুঁকির কথা জিজ্ঞেস করলে ঐ চালক জানান, ঝুঁকি তো আছেই কিন্তু তারপরেও তো কর্মস্থলে সঠিক সময়ে ফিরতে না পারলে চাকুরি থাকবেনা।

মাওনা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ আর আল মামুন দৈনিক অধিকারকে জানান, আমরা ট্রাক অথবা পিক-আপে যাত্রী দেখলে তাদেরকে নামিয়ে দেই। পাশাপাশি এভাবে গাড়ীতে যাতায়াত ঝুঁকিপূর্ণ এ বিষয়ে তাদেরকে সচেতন করি। মূলত বাস ভাড়া থেকে এসব যানবাহনে ভাড়া কম থাকার কারণে যাত্রীরা এসব বাহন ব্যবহার করে। আমরা প্রতিনিয়ত এসব চালক এবং যাত্রীদের সচেতন করার চেষ্টা করছি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড