• সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৬ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন, যাত্রীদের চরম ভোগান্তি

  রাজবাড়ী প্রতিনিধি

০৭ আগস্ট ২০২০, ২২:৫২
ছবি : দৈনিক অধিকার

ইদ ও সাপ্তাহিক ছুটির শেষে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া প্রান্তের ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে, গোয়ালন্দ পদ্মার মোড় হয়ে বিকল্প পথে এবং দৌলতদিয়া-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের গোয়ালন্দ মোড় হতে রাজবাড়ীর দিকে নদী পারের অপেক্ষায় রয়েছে সহস্রাধিক যানবাহন। প্রচন্ড গরমে ঘন্টার পর ঘন্টা সড়কে অবস্থান করায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নারী,শিশু, চালক ও কর্মমুখী মানুষের।

ঘাট সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, কাঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌপথে এবং দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এছাড়া ইদের ছুটির পর প্রথম সাপ্তাহিক ছুটি থাকার কারণেও যাত্রী ও যানবাহনের চাপ রয়েছে।

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা গাড়ী চালকেরা জানান, ঘাটের ব্যবস্থাপনা ভালো থাকলেও ফেরি স্বল্পতার কারণে তাদের ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে। এতে নারী ও শিশুরা বেশি ভোগান্তিতে পড়েছে।

যাত্রীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ইদের পরে শুক্রবার ঘাটে ভীড় থাকবে এটা মাথায় নিয়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ফেরি বৃদ্ধি না করে সেটি কমিয়ে আনা হয়েছে। যে কারণে তাদের ভোগান্তি বৃদ্ধি পেয়েছে দ্বিগুণ ।

দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক মো. আবু আব্দুল্লাহ রনি বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ী নৌপথে ফেরি চলাচল ব্যাহত হবার কারণে যাত্রী ও পরিবহনের চাপ বেড়েছে যার কারণে দৌলতদিয়া প্রান্তে গাড়ীর দীর্ঘ সারি তৈরি হয়েছে। তাছাড়াও এ নৌপথে পর্যাপ্ত ফেরি থাকলেও পদ্মায় প্রবল স্রোতে ফেরিগুলো পারাপার হতে সময় লাগছে দ্বিগুন। তবে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আমরা যাত্রীবাহী ও জরুরী পণ্যবাহী পরিবহন পার করছি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড